সর্বশেষ
শুক্রবার ৪ঠা কার্তিক ১৪২৫ | ১৯ অক্টোবর ২০১৮

আপনার যেসব বিষয় বসকে জানানো ঠিক না

মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী ১৪, ২০১৭

1266044286_1487055608.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

জীবনের প্রয়োজনে আমরা সবাই একটা সময়ে কর্মক্ষেত্রে প্রবেশ করি। আর কর্মক্ষেত্রে প্রবেশ করলে নতুন ন্তুন মানুষের সঙ্গে পরিচয় হয়। তারা হয় বস না হয় সহকর্মী হিসাবে আমাদের কর্মস্থানে কর্মরত আছেন। তবে অফিসে থাকে কিছু নিয়ম-কানুন, যা সবাইকে মেনে চলতে হয়। না হলেই পড়তে হয় ফ্যাসাদে। তাই সব কিছু থেকে দূরে থাকতে বসকে যসব কথা বরতে যাবেন না।

#ভবিষ্যতে কখন আপনি ওই কম্পানি ছেড়ে যাবেন সে বিষয়ক পরিকল্পনা।

#আপনার বিস্তারিত অর্থনৈতিক স্ট্যাটাস। আপনার যদি সম্পদ থাকে তাহলে তা আপনাকে কম বেতন দেয়ার জন্য একটি ভালো কারণ হতে পারে।

#অন্য কর্মীদের বা কোম্পানির ব্যাপারে আপনার অভিযোগ ও নেতিবাচক অনুভূতি।

#আপনার স্বাস্থ্য পরিস্থিতি। যদি বাসস্থান বা ছুটি দরকার না হয় তাহলে আপনার রোগ এবং চিকিৎসার পরিকল্পনা গোপন রাখুন।

#আপনার বস বা বসের বস অথবা কোম্পানির যে কারো সম্পর্কে কোনো গুজব শুনে থাকলে তা কখনোই আপনার বসের কাছে বলবেন না।

#কোম্পানির নেতৃস্থানীয়রা কী পদক্ষেপ নিতে পারেন সে সম্পর্কে আপনার পূর্বানুমান। তার চেয়ে বরং কী ঘটে তার জন্য অপেক্ষা করুন। আপনার প্রেয়সী, ঘনিষ্ঠ বন্ধু বা স্বজনদের সঙ্গে আপনার পূর্বানুমানগুলো বলুন- কিন্তু বসের সঙ্গে নয়।

#চাকরির পাশাপাশি আপনার কোনো ব্যবসা বা পার্ট-টাইম চাকরি থাকলে সে সম্পর্কে বসকে বলবেন না। কারণ এতে আপনার চাকরি চলে যেতে পারে অথবা আপনাকে আপনার ব্যবসা এবং পার্ট-টাইম চাকরি বন্ধ করতে হতে পারে। কেননা এখনো এমন অনেক নিয়োগকর্তা আছেন যারা তাদের কর্মীদেরকে তাদের কোম্পানি ছাড়া আর কোথাও কাজ করতে দেন না। যদি এমন কোনো কোম্পানিতে কাজ করেন তাহলে সাবধান হন বা নতুন চাকির খুঁজুন। তবে এখনকার বেশির ভাগ নিয়োগকর্তাই তাদের কর্মীদেরকে তাদের কোম্পানিতে চাকরির পাশাপাশি ব্যবসা বা পার্ট-টাইম চাকরি করার সুযোগ দেন।

#কোনো সহকর্মীর সঙ্গে আপনার বিরোধ থাকলে তা বসকে বলবেন না। যদি না তা বড় কোনো সংঘর্ষে রূপ নেয় এবং সমাধানের জন্য আপনার বসের সহায়তা দরকার হয়।

#আপনার দৈনন্দিন হতাশাগুলো। প্রতিদিনই আপনাকে অনেক ভার সামলাতে হয়। এর মধ্যে আপনার বসও রয়েছেন। আপনার বসকে আপনার বিজয় বা অর্জনগুলো সম্পর্কে বলুন। আর যখন বসের সাহায্য দরকার হবে তখন তার কাছে তা চান। মনে রাখবেন যেকোনো চাকরিতেই কিছু না কিছু হতাশাজনক বিষয় থাকে। আর আপনি যত বেশি হতাশার মোকাবিলা করবেন ততই শক্তিশালী হবেন।


ঢাকা, মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী ১৪, ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // জে এস এই লেখাটি ৯০০ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন