সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ২রা কার্তিক ১৪২৬ | ১৭ অক্টোবর ২০১৯

রোববার ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন

শনিবার, এপ্রিল ২২, ২০১৭

1335285486_1492848710.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :
ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আগামীকাল রোববার অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এবারের নির্বাচনে মোট ১১ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এদের মধ্যে কট্টর-ডানপন্থি প্রার্থী মারিন ল্য পেনের জয়ের সম্ভাবনা আছে বলে জনমত জরিপগুলোর ফলাফলে প্রকাশ পেয়েছে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এছাড়াও মোট চারজন প্রার্থী পরিষ্কার ব্যবধানে এগিয়ে আছে বলে সব জনমত জরিপে উল্লেখ করা হয়েছে। তবে তাদের কেউই নিরঙ্কুশ জয় পাবেন না বলে জরিপে আভাস পাওয়া গেছে।

গত ১৫ বছরের মধ্যে এই প্রথম কট্টর-ডানপন্থি দল ন্যাশনাল ফ্রন্ট (এফএন) প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয়ের বাস্তব সম্ভাবনা তৈরি করেছে। তাদের প্রার্থী ল্য পেনের সঙ্গে মধ্যপন্থি প্রার্থী এমানুয়েল মাক্রোঁর তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জরিপগুলোর ফলাফলে প্রতিফলিত হয়েছে।

এদিকে শুরুতে জনমত জরিপে এগিয়ে থাকলেও সরকারি তহবিল তছরুপের অভিযোগে তদন্তের মুখে থাকায় পিছিয়ে পড়েছেন মধ্য-ডানপন্থি রিপাবলিকান দলীয় প্রার্থী ফ্রঁসোয়া ফিয়ঁ। তবে এখনও এগিয়ে থাকা চার প্রার্থীর অন্যতম তিনি। এগিয়ে থাকা চার প্রার্থীর আরেকজন হলেন, কট্টর-বামপন্থি প্রার্থী জঁ লুক মেলাঁশোঁ। নির্বাচনী প্রচারণার শেষ দিকে তার প্রতি জনসমর্থন উল্লেখযোগ্যভাবে বেড়েছে।

সর্বশেষ জনমত জরিপের ফলাফলে প্রকাশ পেয়েছে, মারিন ল্য পেন (৪৮) ও এমানুয়েল মাক্রোঁর (৩৯) মধ্যে রান-অফ ভোট হলে মাক্রোঁ জয়ী হবেন। আর তা হলে ফ্রান্সের সবচেয়ে কম বয়সী প্রেসিডেন্ট হবেন তিনি।

প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, আগামী ৭ মে রান-অফ ভোটের মাধ্যমে সবচেয়ে বেশি ভোট পাওয়া প্রথম দুই প্রার্থীর মধ্যে একজন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট হবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

আগামী ১৪ মে এর মধ্যে প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওলাদের কাছ থেকে প্রেসিডেন্টের দায়িত্বভার গ্রহণ করবেন নতুন প্রেসিডেন্ট। আধুনিক ফ্রান্সের ইতিহাসে এই প্রথমবার ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্ট দ্বিতীয় মেয়াদের জন্য নির্বাচনে প্রার্থী হননি।

ঢাকা, শনিবার, এপ্রিল ২২, ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // এস এইচ এই লেখাটি ১১৩৫ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন