সর্বশেষ
বুধবার ২৮শে অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ১২ ডিসেম্বর ২০১৮

কক্সবাজার সৈকতে দম্পতি হেনস্তা, পুলিশের এএসআই প্রত্যাহার

বুধবার, ডিসেম্বর ২০, ২০১৭

8.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে বেড়াতে যাওয়া এক দম্পতির কাছে কাবিননামা দেখতে চাওয়া এবং দীর্ঘক্ষণ আটকে রাখাসহ হেনস্তার অভিযোগে একজন পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করেছে কর্তৃপক্ষ।

ঘটনাটি ঘটেছে রোববার রাতে। কক্সবাজারের স্থানীয় বাসিন্দা মোহাম্মদ কায়েদে আজম স্ত্রীকে নিয়ে সমুদ্র সৈকতে বেড়াতে গিয়েছিলেন। খবর বিবিসির।

তিনি বলেছেন, কিছুক্ষণ বসার পর সেখানে টুরিস্ট পুলিশের তিনজনের একটি দল গিয়ে তাদের কাছে জানতে চায় তারা স্বামী-স্ত্রী কিনা।

আজম যখন বলেন যে তারা স্বামী-স্ত্রী, তখন পুলিশ তাদের কাছে কাবিননামা দেখতে চায়। কাবিননামা দেখাতে না পারলে তাদের থানায় নিয়ে যাওয়া হবে বলে জানায় পুলিশ। আজম প্রশ্ন তোলেন, কোন বিবাহিত নারীপুরুষ কি কাবিননামা সাথে নিয়ে ঘুরে বেড়ায়?

কিন্তু সে যুক্তি মানেনি পুলিশ। কথা বার্তা চলার এক পর্যায়ে বাসা থেকে দুইজন আত্মীয় এসে আজম ও তার স্ত্রীর পরিচয় নিশ্চিত করার পর পুলিশ তাদের ছেড়ে দেয়। তার আগে দুই ঘণ্টা তাদের আটকে রাখে বলে তিনি অভিযোগ করেন।

পরে আজম কক্সবাজারের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে লিখিত অভিযোগ করেন। সেই অভিযোগের প্রেক্ষাপটে মঙ্গলবার টুরিস্ট পুলিশের একজন সহকারী উপ পরিদর্শককে প্রত্যাহার করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজারের টুরিস্ট পুলিশের মুখপাত্র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফজলে রাব্বি।

তিনি জানিয়েছেন, আজমের অভিযোগের প্রেক্ষাপটে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। সেই সঙ্গে যার নামে অভিযোগ করা হয়েছে, সেই টুরিস্ট পুলিশ সদস্যকে ক্লোজ করা হয়েছে।

এছাড়া আজমের কাছে অভিযোগের ব্যপারে পুলিশ তথ্য চেয়েছে বলেও জানিয়েছেন রাব্বি। তিনি স্বীকার করেন, অনেক সময় এমন অভিযোগের কথা শোনা গেলেও সাধারণত কেউ লিখিত অভিযোগ করেনা।

এদিকে, আজম বলেছেন, স্ত্রীর সামনে নাজেহাল হওয়ায় অপমানিত বোধ করার কারণেই তিনি অভিযোগ করেছেন।


ঢাকা, বুধবার, ডিসেম্বর ২০, ২০১৭ (বিডিলাইভ২৪) // জে এইচ এই লেখাটি ৩১১২ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন