সর্বশেষ
রবিবার ৫ই ফাল্গুন ১৪২৪ | ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

জাতীয় গ্রন্থাগার দিবস আজ

সোমবার ৫ই ফেব্রুয়ারি ২০১৮

5.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

'বই পড়ি, স্বদেশ গড়ি' স্লোগানে দেশে এবারই প্রথম পালিত হচ্ছে জাতীয় গ্রন্থাগার দিবস-২০১৮।

১৯৫৪ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি জাতীয় গ্রন্থাগারের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়। এ কারণে ৫ ফেব্রুয়ারিকে জাতীয় গ্রন্থাগার দিবস হিসেবে গতবছর মন্ত্রিসভা অনুমোদন দিয়েছে। একুশে মেলা, একুশে ফেব্রুয়ারির সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে দিবস পালনের জন্য ফেব্রুয়ারি মাস নির্ধারণ করা হয়েছে।

দিবসটি পালনে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় ব্যাপক কর্মসূচী গ্রহণ করেছে। দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক পৃথক বাণী দিয়েছেন।

প্রদত্ত বাণীতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেন, 'সরকারের বিরামহীন উন্নয়ন প্রয়াসে অন্যান্য সেক্টরের ন্যায় গ্রন্থাগারের সেবাদান কার্যক্রমও উন্নত থেকে উন্নততর হচ্ছে। গ্রন্থাগারের পড়াশোনা এখন সনাতন ধারা থেকে তথ্য প্রযুক্তির ধারায় শামিল হয়েছে।'

প্রদত্ত বাণীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, 'গ্রন্থাগার হল জ্ঞানের ভান্ডার। জ্ঞানার্জন, গবেষণা, চেতনা ও মূল্যবোধের বিকাশ, সংস্কৃতি চর্চা ইত্যাদির মাধ্যমে মানুষকে আলোকিত করে তোলা এবং পাঠাভ্যাস নিশ্চিতকরণে গ্রন্থাগারের ভূমিকা অপরিসীম।'

দিবসটি উপলক্ষে সকাল ৯টায় শোভাযাত্রা বের করবে জাতীয় গণগ্রন্থাগার অধিদফতর। এর উদ্বোধন করবেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। বিকেলে জাতীয় জাদুঘরের প্রধান মিলনায়তনে দিবসের তাৎপর্য বিষয়ে আলোচনা অনুষ্ঠান রয়েছে।

সংস্কৃতি সচিব ইব্রাহীম হোসেন খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। বিশেষ অতিথি থাকবেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সিমিন হোসেন রিমি।

অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের সভাপতি অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ। পরে শিল্পকলা একাডেমির পরিবেশনায় থাকবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

গতকাল রোববার ঢাকার সুফিয়া কামাল জাতীয় গণগ্রন্থাগারের সভাকক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়।



ঢাকা, সোমবার ৫ই ফেব্রুয়ারি ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // এস আর এই লেখাটি 217 বার পড়া হয়েছে