সর্বশেষ
সোমবার ৬ই ফাল্গুন ১৪২৪ | ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

ব্রিটেনের প্রবাসী সিলেটিদের নির্বাচনের তাপে উত্তপ্ত মন্ট্রিয়ল

বুধবার ৭ই ফেব্রুয়ারি ২০১৮

15.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

''Greater Sylhet Development & Welfare Council, UK'' এর আগামী ২৫ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনের উত্তাপ লেগেছে প্রচণ্ড শীতের মধ্যে দিয়ে চলা কানাডার মন্ট্রিয়ল সিটিতে।

প্রবাসে বাংলাদেশি কমিউনিটির বৃহত্তম এই সংগঠনের নির্বাচনের জন্য অধীর আগ্রহের সাথে অপেক্ষা করছেন প্রায় ২৫ পচিঁশ হাজার ভোটার।  নির্বাচনকে কেন্দ্র করে মাতৃভূমি বৃহত্তর সিলেট সহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে বইছে নির্বাচনী হাওয়া। ব্রিটেনের অভ্যন্তরে নির্বাচন অনুষ্টিত হলেও এতে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে অংশ গ্রহণ করছেন বৃহত্তর সিলেট সহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকে অসংখ্য প্রবাসী সিলেটী| এমনকি নিয়মিত প্রচারণাও চালাচ্ছেন| সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুক ও রিং আইডি এবং বাংলাদেশী মিডিয়াগুলিতে গুরুত্ব সহকারে প্রচারিত হচ্ছে নির্বাচনের খবর।

ব্রিটেন এবং যুক্তরাষ্ট্রের পর সবচেয়ে বেশি সংখ্যক বৃহত্তর সিলেটের প্রবাসী বাস করে কানাডায়| আর কানাডার অভ্যন্তরে টরোন্টোর পরই মন্ট্রিয়েল শহরে। তদুপরি, মন্ট্রিয়েলের অনেকেই কানাডায় এসেছেন সরাসরি ব্রিটেন থেকে, তাই নাড়ির টানটা একটু বেশি| সেজন্য নির্বাচনী ঢেউটাও একটু বেশী উঁচু| বৃহত্তর সিলেটের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে মন্ট্রিয়েল শহরের বাংলাদেশী মালিকানাধীন রেস্টুরেন্ট এবং গ্রসারী গুলিতে প্রতিদিন চলছে ব্রিটেনের নির্বাচনের আলাপ। কে হারবেন, কে জিতবেন, কে জিতলে কি হবে এসব আলোচনাই প্রতিনিত হচ্ছে মিলিয়ন পাউন্ডের এই নির্বাচনকে ঘিরে।

''Greater Sylhet Development & Welfare Council, UK'' এর  নির্বাচনকে কিভাবে দেখছেন তা জানার জন্য আমরা মুখোমুখি হয়েছিলাম, মন্ট্রিয়ল শহরে দীর্ঘ ধরে বসবাস করছেন এমন কয়েকজন কমিউনিটি ব্যক্তির সাথে। এ প্রসঙ্গে  জালাবাদ এসোসিয়েশন কানাডার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও ব্যবসায়ী জনাব ফয়সল আহমদ চৌধুরী বলেন, ''প্রবাসে বাংলাদেশ ভিত্তিক সর্ব বৃহৎ অরাজনৈতিক সংগঠণ হচ্ছে Greater Sylhet Development & Welfare Council, UK। আমাদের কাছে নির্বাচন হচ্ছে একটি উৎসবের নাম। প্রবাসে বেড়ে ওঠা নতুন প্রজন্ম যারা বাংলাদেশের নির্বাচনের উৎসবের আমেজ উপভোগ করতে পারে নাই, তারা এ নির্বাচনের মাধ্যমে কিছুটা হলেও বাংলাদেশের নির্বাচনের উত্তেজনা ও আনন্দ উপভোগ করবে। তিনি বলেন, যারা নির্বাচিত হয়ে আসবেন তাদের কাছে আমার অনুরোধ থাকবে যেন  আমাদের বৃহত্তর সিলেটের ইতিহাস, ঐতিহ্য, শিক্ষা, সংস্কৃতি প্রবাসে বিকাশে তরুণ প্রজন্মকে উৎসাহ প্রদান করেন|''

বিশিষ্ট ব্যবসায়ী এবং শাহজালাল ইসলামী সেন্টার অব মন্ট্রিয়লের সাধরণ সম্পাদক হাজি সৈয়দ রহমত উল্লাহ বলেন, ''বৃহত্তর সিলেটের প্রবাসীরা বাংলাদেশের উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছেন। 'গ্রেটার সিলেট ডেভেলপমেন্ট ইন ইউকে' ইতিমধ্যে তাদের কাজ কর্মের মাধ্যমে বৃহত্তর সিলেটি প্রবাসীদের মধ্যে আস্থা অর্জন করতেসক্ষম হয়েছে। এবারের নতুন কমিটি বৃহত্তর সিলেটের আর্থ সামাজিক উন্নয়নে প্রবাসে এবং দেশে কাজ করে যাবে, আমি এই আশা রাখছি।''

সিলেট জেলা সমিতি, মন্ট্রিয়লের সভাপতি জনাব আব্দুল হাই বলেন, ''যারাই এবারের নির্বাচনে নির্বাচিত হবেন, তাদের কাছে আমার অনুরোধ থাকবে, তারা যেন সিলেটের শিক্ষা ক্ষেত্রে কাজ করেন। এছাড়া তরুণদের মাঝে সিলেটের গৌরবময় ইতিহাস এবং বিখ্যাত ব্যক্তিদের জীবনকর্ম সম্পকে জানাতে হবে|''

মৌলভীবাজার সমাজ কল্যাণ সমিতি মন্ট্রিয়ল অব কানাডার সভাপতি গোলাম মোহাম্মদ মুতাহির মিয়া বলেন, ''গ্রেটার সিলেট ডেভেলপমেন্ট কাউন্সিল ইন ইউকে' হচ্ছে প্রবাসে মিনি পার্লামেন্ট অব বাংলাদেশ। তাদের নির্বাচনী ফলাফল দেখার জন্য আমি উদগ্রীব হয়ে আছি।''

আইটি প্রফেশনাল ও কমিউনিটি কর্মী শিহাব উদ্দিন বলেন, ''ব্রিটেনকে নিজেদের দেশ হিসেবে এডপ্ট করে বৃহত্তর সিলেটের প্রবাসীরা যেভাবে নিজেদের স্বকীয়তাকে ধরে রেখে মূলধারায় এসিমিলিটেড হয়েছেন, তা সত্যি সারা বিশ্বের প্রাবাসী সিলেটিদের জন্য খুবই গৌরবের| তাই আমি এ নির্বাচনকে বিশেষভাবে অবসার্ভ করছি|''

সাধারণ সম্পাদক পদের অন্যতম প্রতিদ্বন্দ্বী মকিস মনসুর জানান, ''এবারের নির্বাচনে বেশ কয়েকজন তরুণ অংশ গ্রহণ করেছেন, ফলাফল যাই হউক নতুন প্রজন্ম সামাজিক সংগঠনের নেতৃত্বে দেয়ার জন্য এগিয়ে আসছে, এটা আমাদেরকে প্রেরণা যোগাচ্ছে।''

আব্দুল সবুর
মন্ট্রিয়ল, কানাডা থেকে


ঢাকা, বুধবার ৭ই ফেব্রুয়ারি ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // জে এইচ এই লেখাটি 1027 বার পড়া হয়েছে