সর্বশেষ
শনিবার ৭ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

চেলসির মাঠে মেসির গোলে রক্ষা পেল বার্সা

বুধবার, ফেব্রুয়ারী ২১, ২০১৮

4.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

৭৫ মিনিট পর্যন্ত চেলসির রক্ষণ ছিল আক্ষরিক অর্থেই দুর্গ। সেই দুর্গে ভাঙার চেষ্টায় বার্সেলোনার শট অন টার্গেটও ছিল শূন্য! এক গোলে এগিয়ে থাকা ম্যাচে ওই প্রথম কোনো ভুল করল চেলসির রক্ষণ।

আর সেখান থেকেই আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা বল নিয়ে বাঁ দিক থেকে ক্রস করলেন লিওনেল মেসির উদ্দেশ্যে। চেলসির বিপক্ষে এতোদিন কোনো গোলই ছিল না মেসির। এবার আর ভুল করলেন না, বাঁ পায়ের শট চেলসির জালে বল জড়িয়ে বার্সাকে ফিরিয়ে আনলেন ম্যাচে। আর তাতেই স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে চেলসি-বার্সেলোনার চ্যাম্পিয়নস লিগের প্রথম লেগ ড্র হল ১-১ গোলে।

ঘরের মাঠে প্রথমার্ধটা ছিল চেলসিরই। বল দখলের লড়াইয়ে অনুমিতভাবে এগিয়ে থাকলেও নিশ্চিত গোলের সুযোগ তৈরি করতে পারেনি বার্সা। ১৬ মিনিটে অবশ্য লিওনেল মেসি ভালো একটা ক্রস করেছিলেন ডান দিক থেকে, পলিনহোও হেড দিয়েছিলেন। কিন্তু থিবো কোর্তোয়ার জন্য বিপদের কারণ হতে পারেনি বার্সার ওই আক্রমণ। পলিনহোর হেড চলে যায় অনেক বাইরে দিয়ে। এরপর মেসি নিজেই একটা ভালো সুযোগ তৈরি করতে পারেননি ৩০ মিনিটে। চেলসির দুই ডিফেন্ডারের মাঝ দিয়ে শট করতে পারতেন, কিন্তু চেষ্টাটাই চালাতে পারেননি আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড।

এরপরই ম্যাচে ফিরে আসে চেলসি। প্রথমার্ধে বল দখলের লড়াইয়ে বার্সার চেয়ে অনেক পিছিয়েই ছিল আন্তোনিও কন্তের দল। সেটাও অবশ্য বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারত না, বাধা হয়ে দাঁড়াল বারপোস্ট। ৩৪ আর ৪০ মিনিটে দুইবার বারপোস্টে লেগে গোলবঞ্চিত হলেন উইলিয়ান। প্রথমবার ডানদিকে, পরেরবার বাঁ দিকের বারপোস্টে বাধা পেয়ে সে দফায় আর এগিয়ে যাওয়া হয়নি চেলসির। এর দুই মিনিট পর এডেন হ্যাজার্ডের করা ভলিও বার্সার বারপোস্টের ওপর দিয়ে চলে গেলে গোলশূন্য ভাবেই শেষ হয় প্রথমার্ধ।  

বারপোস্ট বাধা দিলেও বিরতির পর উইলিয়ানকে বেশিক্ষণ আটকে রাখতে পারেনি বার্সা। ৬২ মিনিটে আবারও ডিবক্সের বাইরে থেকে বল পেয়ে যান ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার। দূরপাল্লার শটে এবার ঠিকই জালের ঠিকানা খুঁজে নিলেন উইলিয়ান। এর আগ পর্যন্ত প্রতিআক্রমণেই খেলছিল চেলসি। এক গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর প্রতিআক্রমণে খেলার প্রবণতাটা আরও বেড়ে যায় কন্তের দলের। সেই সুযোগটা ৭৫ মিনিটের আগ পর্যন্ত অবশ্য বার্সা কাজে লাগাতে পেরেছিল কমই। উলটো গোল হজমের আগেই দুই গোলে এগিয়ে যাওয়ার ভালো একটা সুযোগ পেয়েছিল চেলসি। এবার গোলটা করাতে পারতেন উইলিয়ান। তবে ফাঁকায় থাকা কানতেকে সময় মতো বলটা দিতে পারেননি। এর কিছুক্ষণ পর উইলিয়ানের আফসোসটা আরও বাড়িয়ে দেন মেসি। সাথে নিজের গেরোটাও কাটান, চেলসির বিপক্ষে নিজের নয় নম্বর ম্যাচে এসে গোল করে।

সমতায় থাকা ম্যাচে লিড ফিরে পাওয়ার আশায় আলভারো মোরাতাকেও পরে নামিয়েছিলেন কন্তে। কিন্তু শেষপর্যন্ত দুই দলের কেউই আর তেমন কোনো সুযোগ তৈরি করতে পারেনি। ১-১ গোলে ড্র হওয়ার পর তাই ন্যু ক্যাম্পের জন্য রোমাঞ্চ তোলা থাকল সবটুকুই! সূত্র: প্যাভিলিয়ন


ঢাকা, বুধবার, ফেব্রুয়ারী ২১, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // জে এইচ এই লেখাটি ১৯৮২ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন