সর্বশেষ
সোমবার ৪ঠা আষাঢ় ১৪২৫ | ১৮ জুন ২০১৮

বাউফলে পৃথক সংবাদ সম্মেলন

বৃহস্পতিবার, মার্চ ৮, ২০১৮

www.jpg
পটুয়াখালী প্রতিনিধি :

জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ আ.স.ম ফিরোজ এমপিকে হত্যার প্রচেষ্টার প্রতিবাদ এবং পৌর আওয়ামী লীগ অফিসে ঢুকে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ চলাকালীন অবস্থায় মাইক, প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ছবি, টেবিল-চেয়ার ভাংচুর ও কেয়ারটেকারকে মারধর করার প্রতিবাদে পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলা আওয়ামী লীগ ও পৌর আওয়ামী লীগ পৃথক সংবাদ সম্মেলন করেছে।

বাউফল উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি চীফ হুইপ আ.স.ম ফিরোজ এর বাসভবনে বুধবার রাতে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে চীফ হুইপ আ.স.ম ফিরোজ জানান, বুধবার বিকেল সারে তিন ঘটিকায় উপজেলা পরিষদ হল রুমে প্রাথমিক শিক্ষা কমিটির সভা চলছিল। এমন সময় আবুল বসার রনি (৩০) নামের এক যুবক সভা কক্ষের ভিতরে প্রবেশ করে আমাকে খুঁজতে থাকে। আচরণে সন্দেহ হলে আমার গানম্যান মহসিন হোসেন তাকে ধরে বাহিরে নিয়ে যান। পরে জানতে পারি তার কাছে একটি ধারালো অস্ত্র, কিছু গাঁজা, একটি মোবাইল ও বেশ কিছু টাকা পাওয়া গেছে।

অপরদিকে, বৃহস্পতিবার সকালে কুন্ডপট্টিস্থ পৌর আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ আওয়ামী কৃষকলীগ কেন্দ্রিয় কমিটি সদস্য এসএম ইউসুফ লিখিত বক্তব্যে জানান, বুধবার বিকেলে উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও তার সহযোগী ৩০/৩৫ জন সন্ত্রাসী পৌর আওয়ামী লীগ অফিসে ঢুকে বঙ্গবন্ধুর ভাষন চলাকালীন অবস্থায় মাইক, প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ছবি, টেবিল চেয়ার ভেঙ্গে রাস্তায় ফেলে দেয়। এসময় বাঁধা দিলে কেয়ার টেকার শাহ আলমকে মারধর করে।

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও বাউফল উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মজিবুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন ফরাজী ও পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক নজরুল ইসলাম ও কাউন্সিলর বাবুল হোসেন খান।


ঢাকা, বৃহস্পতিবার, মার্চ ৮, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ৭৫৫ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন