সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ৬ই বৈশাখ ১৪২৫ | ১৯ এপ্রিল ২০১৮

শিশু কিডনী রোগ বিষয়ে দুই দিনব্যাপী সম্মেলন শুরু

সোমবার, মার্চ ১২, ২০১৮

pori-moni-daily-sun_1.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে শিশু কিডনী রোগ বিষয়ে দুই দিনব্যাপী চতুর্থ আন্তর্জাতিক বৈজ্ঞানিক সম্মেলন শুরু হয়েছে। গতকাল রোববার সন্ধ্যায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ ডা. মিলন হলে প্যাডিয়াট্রিক নেফ্রোলজি সোসাইটি অফ বাংলাদেশ (পিএনএসবি)’র উদ্যোগে আয়োজিত ওই আন্তর্জাতিক বৈজ্ঞানিক সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শুরু হয়।

সম্মেলনে ইউরোপ, এশিয়া ও অষ্ট্রেলিয়া মহাদেশ থেকে নয়জন বিশ্ববিখ্যাত শিশু কিডনী রোগ বিশেষজ্ঞ যোগদান করে বিভিন্ন বৈজ্ঞানিক নিবন্ধ উপস্থাপন করবেন। বৈজ্ঞানিক সম্মেলনে সারা দেশ থেকে পাচঁশত এর বেশি শিশুরোগ ও শিশু কিডনী রোগ বিশেষজ্ঞ যোগদান করেছেন।

এই বিপুল আগ্রহ দেখে মনে হয় আগামী দিনে শিশু কিডনী রোগীদের চিকিৎসার জন্য বিদেশমুখীতার চেয়ে বাংলাদেশ যথেষ্ট বলে বিবেচিত হবে। কারণ বর্তমানে বাংলাদেশে সিকেডি রোগীদের জন্য হিমোডায়ালাইসিস, সিএপিডি ও কিডনী প্রতিস্থাপন করা হয়। এ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিশু কিডনী বিভাগের তত্ত্বাবধানে ১০ জন শিশুর কিডনী প্রতিস্থাপন করা হয়েছে। তাই পিএনএসবি আশা করছে অদূর ভবিষ্যতে শিশু কিডনী রোগীদের বিদেশমুখীতা শূন্যতে হ্রাস পাবে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ ডা. মিলন হলে গতকাল সন্ধ্যা ছয়টায় প্যাডিয়াট্রিক নেফ্রোলজি সোসাইটি অফ বাংলাদেশ (পিএনএসবি)’র উদ্যোগে আয়োজিত সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান।

২০০৪ সালে পেডিয়াট্রিক নেফ্রোলজী সোসাইটি অব বাংলাদেশ (পিএনএসবি) প্রতিষ্ঠার পর থেকে বাংলাদেশে শিশুদের কিডনী রোগ সম্বন্ধে সচেতনতা বৃদ্ধি কল্পে বিশেষ ভূমিকা রেখে আসছে। পিএনএসবির সুপারিশক্রমে বাংলাদেশে প্রথম ২০০০ সালে পেডিয়াট্রিক নেফ্রোলজী বিষয়ে এমডি ডিগ্রি প্রদানের জন্য বিএসএমএমইউ অনুমোদন প্রদান করে এবং এই পরিপ্রেক্ষিতে বিএসএমইেউতে কার্যক্রম শুরু হয়।

পরবর্তীকালে এ বিষয়ে উচ্চতর ডিগ্রি প্রদানে এনআইকেডিইউ ও বিআইসিএইচদের অনুমোদন প্রদান করা হয়। পিএনএসবির যুগান্তকারী পদক্ষেপের কারণে এ পর্যন্ত প্রায় বিশজন পেডিয়াট্রিক নেফ্রোলজী বিষয়ে এমডি ডিগ্রি  প্রাপ্ত হয়ে সারাদেশে শিশু কিডনী রোগীদের সুনামের সাথে চিকিৎসা প্রদান করে আসছেন।

যদিও এই সংখ্যা ও দেশের সকল মেডিকেল কলেজে শিশু কিডনী রোগীদের চিকিৎসা প্রদানের সুযোগ-সুবিধার  এখন পর্যন্ত অপ্রতুল। বিভিন্ন সরকারি মেডিকেল কলেজে যদিও শিশু কিডনী রোগ বিষয়ে ৪৩টি পদ আছে। কিন্ত প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধা ছাড়া বাঞ্জনীয় চিকিৎসা প্রদান সম্ভব নয়।

২০১৬ সালে ১ জুলাই পিএনএসবির নতুন কার্যকরী কমিটির অধ্যাপক মোহাম্মদ হানিফ ও অধ্যাপক মো. হাবিবুর রহমানের নেতৃত্বে দায়িত্ব নেয়ার পর থেকে এই সোসাইটির কার্যক্রমের গতিময়তা বৃদ্ধি পায়। যার ফলে অনেক মেডিকেল কলেজে সিএমই প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত হয়। ছয় মাস পর পর পেডিয়াট্রিক নেফ্রোলজী জার্নাল অব বাংলাদেশ নামে একটি ষান্মাসিক জার্নালে ছাপা হয়। যাতে দেশের প্রতিষ্ঠিত সিনিয়র ও জুনিয়র শিশু কিডনী বিশেষজ্ঞদের বৈজ্ঞানিক নিবন্ধ ছাপা হয়। এই সোসাইটির কার্যক্রমের ফলে গত দুই বছরে শিশু কিডনী রোগ সম্বন্ধে ব্যাপক সচেতনতা সৃষ্টি হয়েছে।

দুই দিনব্যাপী সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বিএমডিসির সভাপতি ও বিপিএর সভাপতি অধ্যাপক মোহাম্মদ সহিদুল্লা। সভাপতিত্ব করেন (পিএনএসবির) সভাপতি অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ হানিফ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন (পিএনএসবির ) মহাসচিব অধ্যাপক মো. হাবিবুর রহমান। আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ প্যাডিয়াট্রিক এ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব অধ্যাপক এমএকে আজাদ চৌধুরী। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন অধ্যাপক রণজিত রঞ্জন রায়।


ঢাকা, সোমবার, মার্চ ১২, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // জে এস এই লেখাটি ১৪৮ বার পড়া হয়েছে