সর্বশেষ
সোমবার ২৬শে অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ১০ ডিসেম্বর ২০১৮

পুলিশ হওয়ার স্বপ্ন পূরণ হলো না তাদের

সোমবার, মার্চ ১২, ২০১৮

main-qimg-4c948a9ec8ef4a52d7c996330a21a7cc.jpg
আবদুস সবুর কাজল, চরভদ্রাসন থেকে :

ফরিদপুর লোহারটেক গ্রামের বারেক বাছারের বাড়ির সামনে রোববার রাত দশটার পরে মোটর সাইকেল নিয়ন্ত্রন হারিয়ে ফেললে দুই যুবক নিহত হন। একই ঘটনায় আহত হন আরো একজন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মোটর সাইকেল নিয়ন্ত্রন হারিয়ে ফেললে রাস্তার পাশের গাছের সাথে সজোরে মাথায় আঘাত লাগে চালক মাসুদ মুন্সির(২০)। এ সময় মেহেদি হাসান মিঠু(১৮) ও আরশাদ বেপারী(১৯) নামে আরো দুই যুবক তার পেছনে বসা ছিল। ঘটনাস্থলে মাসুদ ও মিঠু দুজনই নিহত হন এবং আরশাদকে মুমূর্ষ অবস্থায় ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

“মা আমার চাকরি হইছে আমি বাড়ি আসতেছি, সোনা আমার আইলো লাশ হয়ে।পুলিশ কনস্টেবল পদে ভাইবা পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে মুঠোফোনে এমনটিই বলেছিল মাসুদ মুন্সি(২০)। কান্না জড়িত কন্ঠে বললেন মাসুদের মা মাজেদা বেগম।

মাসুদ সদর ইউনিয়নের উত্তর আলম নগর মধূ শিকদারের ডাঙ্গীর বাসিন্দা মালোয়েশিয়া প্রবাসী রশিদ মুন্সির ছোট ছেলে। সে সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের ইতিহাস বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র ছিল।

তিন জনের পারিবারিক সূত্রে জানা যায় তিন জনই পুলিশ কনস্টেবল পদে ভাইবা পরীক্ষা দেবার জন্য রোববার বিকেলে ফরিদপুরে যায়। এর মধ্যে মিঠু ও মাসুদ ভাইবা পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়। মিঠু ও আরশাদ চরভদ্রাসন সরকারি কলেজের প্রথম ও দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। আরশাদ মাসুদদের গ্রামের কালাম বেপারীর ছেলে ও মিঠু সদর ইউনিয়নের আব্দুল শিকদারের ডাঙ্গী গ্রামের আ: ওহাব শেখের ছেলে।

দুই ছাত্রের মৃত্যুতে এলাকায় শোকের মাতম বইছে। নিহত মিঠুর দাফন সম্পন্ন হলেও মাসুদের লাশ তার বাবাকে দেখানোর জন্য ফরিদপুর হিমাগারে রাখা হয়েছে।


ঢাকা, সোমবার, মার্চ ১২, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // জে এস এই লেখাটি ১৭৪৬ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন