সর্বশেষ
সোমবার ৯ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

আগামী মাসগুলো বিএনপির জন্য পরীক্ষা: মওদুদ

শুক্রবার, মার্চ ২৩, ২০১৮

moudud_press-Club_samakal_F-5ab4edbc010b3.jpg
বিডিলাইভ রিপোর্ট :

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, আগামী মাসগুলো বিএনপির জন্য পরীক্ষা। সরকার সমঝোতায় না আসলে রাজপথে কঠোর আন্দোলন ছাড়া বিএনপির সামনে আর কোনো বিকল্প থাকবে না।

জাতীয় প্রেস ক্লাবে শুক্রবার এক আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে এ সভার আয়োজন করে 'জিয়া নাগরিক ফোরাম'।

সভায় মওদুদ আহমদ বলেন, একদিকে সরকার বলছে দেশের বিচার বিভাগ স্বাধীন। অন্যদিকে খালেদা জিয়ার ওকালতনামায় স্বাক্ষর নিয়ে কারা কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা হচ্ছে। এই দ্বিমুখী নীতির কারণেই খালেদা জিয়ার কারামুক্তি বিলম্বিত হচ্ছে। তিনি মুক্তি পাবেন। মুক্ত হয়ে জনগণের মাঝে আসবেন।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়া ছাড়া বাংলাদেশে কোন সাধারণ নির্বাচন হবে না, হতে পারে না। কারণ এই নির্বাচন কখনোই দেশের মানুষ মেনে নেবে না।

তিনি আরও বলেন, যদি সরকার যদি মনে করেন, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির মতো আরেকটি নির্বাচন করবেন। তাহলে তারা দিবাস্বপ্ন দেখছেন। এই স্বপ্ন কোনো দিন বাস্তবায়িত হবে না। সবকিছুরই একটা সীমা আছে। এই সরকার সেই সীমা পেরিয়ে গেছে।

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে দেশের জনমতের প্রতিফলন ঘটেছে বলে দাবি করেন মওদুদ আহমদ। তিনি বলেন, 'জাতীয় সংসদ নির্বাচন অবাধ-সুষ্ঠু হলে বিএনপি জোট ও আওয়ামী লীগ জোটের আসন তফাৎ হবে ৭৫ শতাংশ। অর্থাৎ বিএনপি জোট ৭৫ শতাংশ আর আওয়ামী লীগ জোট ২৫ শতাংশ। এটাই হলো সত্যিকারের বর্তমান জনমত।'

মওদুদ আহমদ বলেন, 'গত বৃহস্পতিবার চার ঘণ্টা রাস্তা বন্ধ করে উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে বাংলাদেশের স্বীকৃতি লাভের উৎসব করা হয়েছে। যেখানে গণতন্ত্র নাই, সেখানে উন্নয়নশীলতা অর্থহীন।

সংগঠনটির সভাপতি মিয়া মো. আনোয়ারের সভাপতিত্বে এতে আরও বক্তব্য দেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম, প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক এবিএম মোশাররফ হোসেন, স্বাধীনতা ফোরামের সভাপতি আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ প্রমুখ।


ঢাকা, শুক্রবার, মার্চ ২৩, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ৪১৮ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন