সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ৫ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

নার্ভ গ্যাস রাশিয়া থেকে আসার প্রমাণ পাননি ব্রিটিশ বিজ্ঞানীরা

বুধবার, এপ্রিল ৪, ২০১৮

4.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

ব্রিটেনে বসবাসরত সাবেক রুশ দ্বৈত গুপ্তচর সের্গেই স্ক্রিপালের ওপর হামলার কাজে ব্যবহৃত নার্ভ গ্যাস যে রাশিয়ায় তৈরি হয়েছে এমন শক্ত কোনো দলিল ব্রিটিশ বিজ্ঞানীরা খুঁজে পাননি।

ওই গ্যাসের উৎস খুঁজে বের করার কাজে নিয়োজিত প্রোটন ডন ডিফেন্স ল্যাবরেটরির প্রধান নির্বাহী গ্যারি এইটকেনহেড বলেছেন, 'আমরা এই গ্যাসের সঠিক উৎস শনাক্ত করতে পারিনি, কিন্তু আমরা সরকারকে এ সংক্রান্ত বৈজ্ঞানিক তথ্য সরবরাহ করেছি। সরকার এখন অন্যান্য সূত্র থেকে পাওয়া তথ্য মিলিয়ে এ ব্যাপারে একটি সিদ্ধান্ত নিতে পারবে।'

তবে তিনি বলেন, স্ক্রিপাল ও তার মেয়েকে হত্যা প্রচেষ্টায় ব্যবহৃত রাসায়নিক পদার্থটি যে সামরিক কাজে ব্যবহৃত নার্ভ গ্যাস- নেভিচক সে ব্যাপারে তারা নিশ্চিত হয়েছেন।

ব্রিটিশ বিজ্ঞানীরা দীর্ঘ প্রায় একমাসের গবেষণার পরও নার্ভ গ্যাসের উৎসের ব্যাপারে নিশ্চিত হতে না পারলেও দেশটির সরকার এরইমধ্যে এজন্য রাশিয়াকে দায়ী করে দেশটির বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক পদক্ষেপ নিয়েছে। ব্রিটেনকে অনুসরণ করে আমেরিকাসহ অন্যান্য পশ্চিমা দেশও মস্কোর বিরুদ্ধে একাধিক ব্যবস্থা নিয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ৪ মার্চ ব্রিটেনের সলসবারি শহরের একটি বেঞ্চের ওপর সাবেক রুশ দ্বৈত গুপ্তচর সের্গেই স্ক্রিপাল ও তার ৩৩ বছরের মেয়ে ইউলিয়াকে অচেতন অবস্থায় পাওয়া যায়। তাদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করার পর ব্রিটেন দাবি করে, রাশিয়ায় তৈরি নার্ভ গ্যাস- নোভিচক ব্যবহার করে ওই গুপ্তচরকে হত্যার চেষ্টা চালানো হয়। পরবর্তীতে সরাসরি এ ঘটনার জন্য মস্কোকে দায়ী করে রাশিয়ার কূটনীতিকদের বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেয় ব্রিটিশ সরকার।

রাশিয়া অবশ্য তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগকে 'হাস্যকর' বলে উড়িয়ে দিয়েছে। মস্কো বলছে, ব্রিটেনসহ যেসব দেশে এই নার্ভ গ্যাস নিয়ে গবেষণা হয় সেসব দেশ থেকে এটির যোগান এসে থাকতে পারে। স্ক্রিপালের ওপর হামলার ঘটনার তদন্তে লন্ডনকে সহযোগিতা করারও প্রস্তাব দিয়েছে মস্কো। সূত্র: পার্স টুডে


ঢাকা, বুধবার, এপ্রিল ৪, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // এস আর এই লেখাটি ১৪৫৮ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন