সর্বশেষ
শুক্রবার ১১ই জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ | ২৫ মে ২০১৮

রানির পর কমনওয়েলথের প্রধান হচ্ছেন চার্লস

শনিবার, এপ্রিল ২১, ২০১৮

12.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

রানি এলিজাবেথের পর ব্রিটিশ যুবরাজ চার্লসই হতে যাচ্ছেন ৫৩ দেশের কমনওয়েলথ জোটের প্রধান।

গতকাল শুক্রবার যুক্তরাজ্যে কমনওয়েলথের এক বৈঠকে সদস্য রাষ্ট্রের প্রধানরা ভবিষ্যৎ জোটপ্রধান হিসেবে চার্লসের মনোনয়ন অনুমোদন করেছেন।

বিংশ শতাব্দীর মাঝামাঝি থেকে যাত্রা শুরু করা কমনওয়েলথের প্রধান হিসেবে প্রায় সাত দশক কাটিয়ে দিচ্ছেন রানি এলিজাবেথ। ১৯৫২ সালে ব্রিটিশ সিংহাসনে বসার পর থেকেই তিনিই এ জোটের প্রধান।

গত বৃহস্পতিবার কমনওয়েলথের প্রধান হিসেবে দেয়া বক্তব্যে ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ কমনওয়েলথের প্রধান হিসেবে তার বড় ছেলে প্রিন্স চার্লসকে মনোনীত করার আহ্বান জানান।

রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ বলেন, আন্তরিকভাবেই তিনি চান যে তার ছেলে একদিন এই দায়িত্ব পালন করবেন। রানি তার ভাষণে বলেন, কমনওয়েলথ যেভাবে বিকশিত হয়েছে তাতে তিনি সন্তুষ্ট এবং গর্ব অনুভব করেন। তিনি আশা করেন, তার বড় ছেলে প্রিন্স চার্লস তার পর এই প্রতিষ্ঠানের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করবেন, যার মধ্য দিয়ে কমনওয়েলথের স্থিতিশীলতা এবং ধারাবাহিকতা বজায় থাকবে।

রানির বক্তৃতার পরই ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে এবং কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো চার্লসকে পরবর্তী প্রধান হিসেবে নির্বাচিত করার প্রস্তাব দেন। এরপর শুক্রবার বৈঠক চার্লসকেই পরবর্তী প্রধান হিসেবে মনোনীত করে কমনওয়েলথ।

সম্মেলনে ৫৩টি সদস্য দেশের মধ্যে ৪৬টি দেশের সরকার প্রধান উপস্থিত ছিলেন। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও এই সম্মেলনে যোগ দিয়েছেন।

বিশ্বের প্রায় ২৪০ কোটি মানুষের প্রতিনিধিত্ব করে কমনওয়েলথ। প্রতি দুই বছর পর পর এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। জোটের ৫৬টি সদস্য দেশের প্রেসিডেন্ট, প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রী, তাদের পরিবারের সদস্য, লবিস্ট এবং সাংবাদিকরা এতে অংশগ্রহণ করেন।


ঢাকা, শনিবার, এপ্রিল ২১, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // এস আর এই লেখাটি ৪০৭ বার পড়া হয়েছে