সর্বশেষ
বুধবার ৯ই জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ | ২৩ মে ২০১৮

নির্বাচনে ভারত হস্তক্ষেপ করবে না: কাদের

শনিবার, এপ্রিল ২১, ২০১৮

kader-1.jpg
বিডিলাইভ রিপোর্ট :

আওয়ামী লীগের ১৯ সদস্যের প্রতিনিধি দল রোববার ভারত সফরে যাচ্ছে। ভারতে ক্ষমতাসীন দল বিজেপির আমন্ত্রণে তিন দিনের এই সফরে প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেবেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

পরদিন সোমবার ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠক করবে প্রতিনিধি দল। সফর শেষে আগামী ২৪ এপ্রিল প্রতিনিধি দলের দেশে ফেরার কথা।

এই সফরের বিস্তারিত তুলে ধরতে শনিবার আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমণ্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের পক্ষে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে।

এ সময় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভারত এবং দেশটির সরকার হস্তক্ষেপ করবে না। ভারত আগেও এ দেশের নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করেনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগের ক্ষমতার উৎস দেশের জনগণ। ভারতের বিজেপি এসে আওয়ামী লীগের জন্য ভোট চাইবে না, চাইতেও পারবে না। ভারতীয় গণতন্ত্রের একটা সৌন্দর্য রয়েছে। তারা অন্য দেশের অভ্যন্তরীণ রাজনৈতিক বিষয়ে হস্তক্ষেপ করে না। অন্য দেশগুলো এ বিষয়ে খুব দৌড়াদৌড়ি করে, ছোটাছুটি করে। ভারত এগুলো করে না।

তিনি বলেন, আমাদের এই সফরের সঙ্গে নির্বাচনের কোনো সম্পর্ক নেই। এই সফরে শুধু বায়লেটেরাল টকস হবে। এটা খুব স্বাভাবিক প্রক্রিয়া। এখানে অন্য কোনো কারণ খোঁজার তো কোনো কারণ নেই।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সফরের পর ইন্ডিকেশন কী, তা বোঝা যায়। যদিও এটা বড় ডেলিগেশন। এই সফর নিয়ে কথা উঠছে কেন? ক'দিন আগেও তো আমাদের ২০ সদস্যের বেশি প্রতিনিধি দল চীন সফরে গিয়েছিল। চীনকে কী তাহলে আপনারা ছোট করে দেখছেন। ইন্দো-বাংলা সম্পর্ক ৭১ সাল থেকে। রক্তের রাখিবন্ধন। একটা দেশের সঙ্গে অন্য দেশের সম্পর্কের ক্ষেত্রে উভয়েরই স্বার্থ থাকে। এক্ষেত্রেও তাই। আমাদের ভুলে গেলে চলবে না ভারতের সঙ্গে আমাদের সীমান্ত অনেক বড়। তাদের সঙ্গে যুদ্ধ করে তো সমাধান হবে না। আলাপ-আলোচনা করেই সমাধান করতে হবে।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ৭৪'র ল্যান্ড বাউন্ডারি চুক্তিও কিন্তু শেখ হাসিনার বিচক্ষণ নেতৃত্বের কারণে বাস্তবায়ন হয়েছে। আমাদের ভিজিটটা যেহেতু খুব ছোট তারপরও আমাদের সব ধরনের চেষ্টা থাকবে। কথা হবে। ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার চাইলেই তো তিস্তা চুক্তি বাস্তবায়ন করতে পারবে না। কারণ পশ্চিমবঙ্গের একটা প্রভাব আছে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ, জাহাঙ্গির কবির নানক, আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামিম, দফতর সম্পাদক ড. আবদুস সোবাহান গোলাপ, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য ইকবাল হোসেন অপু প্রমুখ।


ঢাকা, শনিবার, এপ্রিল ২১, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ৪৬২ বার পড়া হয়েছে