সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ১লা ভাদ্র ১৪২৫ | ১৬ আগস্ট ২০১৮

বাউফলে মা কে বাঁচাতে এসে নিজে খুন

সোমবার, মে ১৪, ২০১৮

manobkantha-131.jpg
পটুয়াখালী প্রতিনিধি :

পটুয়াখালীর বাউফলে জমিজমা বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় বাবার বাড়ি বেড়াতে এসে স্বজনদের হাতে খুন হয়েছেন হ্যাপী বেগম (৩৫) নামের এক প্রবাসীর স্ত্রী।

বাউফল উপজেলার বগা ইউনিয়নের রাজনগর গ্রামের রবিবার রাত ৯টার সময় এ ঘটনা ঘটেছে। নিহত হ্যাপির বেগমের স্বামীর নাম ফয়সাল আহম্মেদ। তিনি বিদেশে থাকেন।

স্থানীয় বাসিন্দা ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, নিহত হ্যাপী বেগমের বাবা ইব্রাহি হাওলাদার তার আপন চাচাতো ভাই কালাম হাওলাদার ও আবদুর রহিম হাওলাদারের কাছ থেকে বাড়ির মধ্যে ভিটির জমি ক্রয় করেন। কিন্তু ওই জমির দখল না দেয়ায় এনিয়ে প্রায়ই তাদের মধ্যে ঝগড়া ঝাটি হতো। ঘটনার দিন রাত ৯ টার সময় আবদুর রহিমের ছেলে আবদুর রব একটি অটোগাড়ী নিয়ে বাড়িতে ঢোকার পথে ইব্রাহিমের ঘরের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। এ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে হ্যাপী বেগমের মা হোসেনেয়ারা বেগমের সাথে ঝগড়াঝাটি হলে কালাম হাওলাদার, আবদুর রব, লতু হাওলাদার, আবদুর রহিম, রেনু বেগম, পিয়ারা বেগম, সীমা বেগম ও শাহনাজ বেগম (হোসনেয়ারাকে) মারধর করে।

একপর্যায়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় কুপিয়ে জখম করে। এসময় মাকে বাঁচাতে হ্যাপী বেগম এগিয়ে এলে তাকেও এলোপাতাড়ি ভাবে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে তিনি মারা যান। ঘটনার সময় হ্যাপির বাবা ইব্রাহিম হাওলাদার বাড়ি ছিলনা। হ্যাপী বেগমের স্বামীর বাড়ি ফরিদপুর। রিয়া নামের ৯ বছরের এক মেয়ে নিয়ে সাভারে থাকেন হ্যাপী। ঘটনার এক সপ্তাহ আগে বাবার বাড়িতে বেড়াতে আসেন তিনি।

আহত হোসনেয়ারা বেগমকে আশংকাজনক অবস্থায় বরিশাল শের-ই-বাংলা হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

বাউফল থানার ভার প্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মনিরুল ইসলাম বলেন, ঘটনার সাথে জড়িত আবদুর রব ও কালাম হাওলাদার ও মালা বেগম নামের তিন ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য পটুয়াখালী মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। বাকি আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।


ঢাকা, সোমবার, মে ১৪, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ৬৪৪ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন