সর্বশেষ
মঙ্গলবার ১০ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

'রিয়াল মাদ্রিদেই বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়রা আছেন'

বৃহস্পতিবার, মে ১৭, ২০১৮

7.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

বার্সেলোনা ফরোয়ার্ড লিওনেল মেসি বলেছেন বিশ্বের কোন দলেরই রিয়াল মাদ্রিদের মত জেতার ক্ষমতা নেই। মাঝে মাঝে খারাপ খেলেও মাদ্রিদ ঠিকই ম্যাচ শেষে ফলাফল আদায় করে নেয়।

এবার নিয়ে টানা তৃতীয়বারের মত চ্যাম্পিয়নস লীগের ফাইনালে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে রিয়াল। এবার তারা প্যারিস সেইন্ট-জার্মেই, জুভেন্টাস ও বায়ার্ন মিউনিখের মত দলকে পিছনে ফেলে ফাইনাল নিশ্চিত করে। অন্যদিকে বার্সা একটি মাত্র বাজে পারফরমেন্স দেখিয়ে রোমার কাছে এ্যাওয়ে ম্যাচে ৩-০ গোলে পরাজিত হয়ে প্রতিযোগিতা থেকে বিদায় নেয়।

মেসি বলেছেন, পজিশনের দিক থেকে দেখতে গেলে প্রতিটি পজিশনেই মাদ্রিদে বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়রা আছেন। বার্সাতেও আছে, কিন্তু মাদ্রিদে যা আছে তা কেবলমাত্র তাদেরই আছে। তারা খারাপ খেললেও ঠিকই ফল পায়। অথচ জয়ের দিক থেকে আমরা কিছুটা পিছিয়ে। এবারের চ্যাম্পিয়নস লীগে প্রথম লেগে ৪-১ গোলে এগিয়ে থেকেও সেমিফাইনালের আগে আমাদের বিদায় নিতে হয়েছে, যা সত্যিই অনেক হতাশার। কিন্তু একইসাথে আমি আবারো ফাইনালে মাদ্রিদের খেলা দেখার সুযোগ পাচ্ছি। আমি প্রতি বছর চ্যাম্পিয়নস লীগ জিততে চাই, প্রতি বছর লীগ জিততে চাই, এই লক্ষ্য নিয়েই আমরা মাঠে নামি।

এবারের মৌসুমে ডাবল শিরোপা দিয়ে মৌসুম শেষ করেছেন বার্সেলোনা। গত চার বছরে এটা তাদের তৃতীয় সাফল্য। কিন্তু গত তিন আসরে তারা ইউরোপে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায় নিয়েছে। কিন্তু তারপরেও গত বছর ক্যাম্প ন্যুতে দীর্ঘমেয়াদী চুক্তি নবায়ন করে মেসি জানিয়েছেন এই ক্লাব ছাড়ার বিষয়টি তিনি চিন্তাও করতে পারেননা।

মাঝে মাঝে তাকে নিয়ে ম্যানচেস্টার সিটিতে চলে যাবার গুঞ্জন ওঠে। সেখানে সাবেক কোচ পেপ গার্দিওলা ও সার্জিও আগুয়েরোর সাথে তার যোগাযোগের বিষয়টি অনেকবারই আলোচনায় এসেছে। কিন্তু এ ব্যাপারে একেবারেই নেতিবাচক মনোভাব দেখিয়েছেন এই বার্সা সুপারস্টার।

এ সম্পর্কে মেসি বলেন, আমি কখনই বার্সা ছাড়বো না। আমার জন্য এর থেকে ভাল জায়গা হতে পারেনা। এটা বিশ্বের সেরা দল। প্রতি বছর আমি এখানে সবকিছু জয়ের জন্য লড়াই করি। আমি জানি প্রতি মৌসুমে ব্যক্তিগত চ্যালেঞ্জের মুখে আমাকে পড়তে হয়। অন্য কোথাও গিয়ে এসব প্রমাণের প্রয়োজন আমার নেই।


ঢাকা, বৃহস্পতিবার, মে ১৭, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // জে এইচ এই লেখাটি ৩৫৪২ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন