সর্বশেষ
শনিবার ৯ই আষাঢ় ১৪২৫ | ২৩ জুন ২০১৮

নোবিপ্রবি উপাচার্যের রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন

শুক্রবার, জুন ১, ২০১৮

gggg.jpg ছবি উৎস : বিডিলাইভ২৪
নোবিপ্রবি প্রতিনিধি :

মিয়ানমারের রাখাইনে সেনাবাহিনীর নির্যাতনের মুখে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের পরিস্থিতি সরেজমিনে দেখতে কক্সবাজারের টেকনাফের একাধিক রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেছেন নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. এম অহিদুজ্জামান।

বৃহস্পতিবার (৩১ মে) দিনব্যাপী তিনি টেকনাফের কতুপালং, বালুখালি, দমদমিয়া, নোম্যান্স ল্যান্ড ও কেনারিপাড়া রোহিঙ্গা ক্যা¤পগুলো পরিদর্শন করেন। এসময় রোহিঙ্গাদের সার্বিক মানবিক বিপর্যয় দেখে তিনি আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন।

রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠি নিজ দেশে ফিরে যেতে চায়। কিন্তু অমানুষিক নির্যাতন তাদের প্রতিনিয়ত তাড়া করে ফিরছে তাই তারা বাংলাদেশেই নিজেদের নিরাপদ মনে করছে।

এক বিবৃতিতে নোবিপ্রবি উপাচার্য বলেন, তাদের মানবিক বিপর্যয় রোধে খাদ্য, বাসস্থান আর চিকিৎসা সেবা সুনিশ্চিত করে খুব দ্রুতই রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন কার্যক্রম শুরু করা জরুরি। আর নোয়াখালীর ভাসান চরে যেসকল রোহিঙ্গা পরিবারকে প্রত্যাবাসন করা হবে ওইসব পরিবারের শিশুরা যেন পড়ালেখা থেকে বঞ্চিত না হয়, তাই ভাসানচরে পূর্ব থেকেই পর্যাপ্ত বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার কথা ব্যক্ত করেন তিনি। কক্সবাজারের দুর্গম ক্যাম্পগুলোতে আন্তর্জাতিক অনেক সংস্থা ও সংঠনের পক্ষ থেকে শিক্ষাসহায়ক কার্যক্রম চালু রাখলেও, আরো বেশি সহায়তা সেখানে প্রয়োজন বলে জানান তিনি।

উপাচার্য প্রফেসর ড. এম অহিদুজ্জামান বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার প্রশংসা করে বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুদক্ষ সাংগঠনিক নেতৃত্বে লাখো রোহিঙ্গাকে আশ্রয় প্রদান ও তাদের সাবির্ক নিয়ন্ত্রণ সম্ভব হয়েছে। অন্যথা রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও ধর্মীয় নানাবিধ থ্রেট বাংলাদেশকে মোকাবেলা করতে হতো।

তিনি আরো বলেন, একটি বিষয় লক্ষণীয় লাখো রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দিলেও আইন শৃঙ্খলা এবং সার্বিক নিরাপত্তাব্যবস্থা স্বাভাবিক রয়েছে, এক্ষেত্রে স্থানীয় লোকজন ও প্রসাশনসহ সকল মহল থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে সহায়তা করা হচ্ছে।


ঢাকা, শুক্রবার, জুন ১, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ৩১৫ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন