সর্বশেষ
শনিবার ৩রা ভাদ্র ১৪২৫ | ১৮ আগস্ট ২০১৮

এশিয়া কাপ জিতে ইতিহাস সৃষ্টি করলো বাংলাদেশ

রবিবার, জুন ১০, ২০১৮

34881816_803863863144410_6153410567081033728_n.jpg
বিডিলাইভ রিপোর্ট :

ফাইনালে জিতে বাংলাদেশ নারী দল ইতিহাস সৃষ্টি করলো। এশিয়া কাপ টি-টোয়েন্টিতে ভারতকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করলো বাংলাদেশের মেয়েরা। টানা পঞ্চম জয়ে এই অনন্য অর্জন ছিনিয়ে নিলো সালমারা।

রোববার কুয়ালালামপুরের কিনরারা একাডেমি ওভাল মাঠে ভারতকে ৩ উইকেটে হারিয়ে তৈরি করলো এক গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস। উড়ল বাংলাদেশের পতাকা।

চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পথে বাংলাদেশ নারী দল ভারতকে দুইবার ও পাকিস্তানকে একবার পরাজিত করেছে। এছাড়াও জয় তুলে নিয়ে থাইল্যান্ড ও মালয়েশিয়ার বিপক্ষেও।

বাংলাদেশ নারী দলের এ জয় যেন এক ঐতিহাসিক মঞ্চ রচনা। এশিয়া কাপের ছয় আসরের সবকটিতেই চ্যাম্পিয়ন শিরোপা ঘরে তুলেছে ভারত। অন্যদিকে এবারই প্র্রথমবার ফাইনালে উঠেছে বাংলাদেশ। সে হিসেবে ফাইনালে একেবারেই অনভিজ্ঞ একটি দল বাংলাদেশ শক্তিশালি ভারতকে হারিয়ে শিরোপা ঘরে তুলল।

এশিয়া কাপের এ আসরে দুর্দান্ত খেলছে বাংলাদেশের লাল-সবুজ প্রমীলারা। এখন পর্যন্ত খেলা নিজেদের প্রথম ম্যাচ ব্যতীত বাকি সব ম্যাচেই দাপট দেখিয়েছেন তারা। টানা জয়ের মধ্যে দিয়ে প্রথমবারের মতো এমন আসরের ফাইনালে জায়গা করে নেয় বাংলাদেশ।

নিজেদের প্রথম ম্যাচে শ্রীলংকার কাছে হারের পর বিস্ময়করভাবে ঘুরে দাঁড়ায় বাংলাদেশ। পাকিস্তান, ভারত, থাইল্যান্ড ও স্বাগতিক মালয়েশিয়াকে দাপটের সঙ্গে হারিয়েছেন তারা।

খেলায় প্রথম ইনিংসে শিরোপা জেতার মিশনে নেমে বাংলাদেশের নারীদের বোলিংয়ে বিপর্যয়ের মুখে পড়ে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভারত। বাংলাদেশ অধিনায়ক সালমা খাতুনের চতুর্থ ওভারের প্রথম বলে ভারতের প্রথম উইকেটের পতন হয়। ব্যক্তিগত ৭ রানে রানআউট হয়ে সাজঘরে ফেরেন ওপেনার এস. মানধানা।

এরপর হারমানপিত কের (সি) ব্যতীত ভারতীয় প্রমীলাদের আর কেউ টাইগ্রেসদের বলিং তোপে দাঁড়াতে পারেনি। দলের হয়ে একমাত্র হাফ সেঞ্চুরিটি আসে তার ব্যাট থেকেই। তার ব্যাটের উপর ভর করেই ১১২ রানের লক্ষ্য বেধে দেয় ভারত।

ভারতের দেয়া ১১২ রানের লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নেমে শুভ সূচনা করে বাংলাদেশ। ওপেনার শামীমা সুলতানা এবং আয়শা রহমান স্কোরবোর্ডে ৩৫ রান যোগ করে অপরাজিত থাকেন এ ওপেনিং জুটি।

পুনম যাদব ব্রেকথ্রু এনে দেন। ২৩ বলে ১৭ রানে আউট হয় আয়শা রহমান। পরের বলেই আবার আঘাত হানেন পুনম। শামীমা সুলতানাকে ১৬ রানে প্যাভিলিয়নে ফেরান তিনি। দলীয় ৫৫ রানে ফারজানা হক পুনমের তৃতীয় শিকারে পরিণত হলে কিছুটা চাপে পড়ে বাংলাদেশ। এরপর নিগার সুলতানার ৩০ রানের উপর ভর করে বাংলাদেশের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৪ উইকেট হারিয়ে ১৬ ওভারে ৮৫ রান। ৪টি উইকেটই যায় পুনম যাদবের ঝুলিতে।

দলের হাল ধরেন রুমানা আহমেদ। দুর্ভাগ্যজনক রানআউট হবার পূর্বে তার সংগ্রহ ছিল ২২ বলে ২৩ রান। শেষ ২ বলে ২ রানের প্রয়োজন পড়লে ম্যাচ পরিস্থিতি টানটান উত্তেজনায় রূপ নেয়।

সানজিদা রানআউট হয়ে গেলে জয়ের কাণ্ডারীতে পরিণত হন অলরাউন্ডার জাহানারা আলম। শ্বাসরুদ্ধকর পরিস্থিতিতে শেষ ১ বলে ২ রান নিয়ে ভারতের বিপক্ষে ৩ উইকেটে জয় লাভ করে ইতিহাস গড়েন লাল-সবুজের বাংলাদেশ।
 
যেকোনও পর্যায়ের ক্রিকেটে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের এটাই সেরা সাফল্য। গ্রুপ পর্বে ভারতকে হারানোর অভিজ্ঞতা ফাইনালে বেশ কাজে দিয়েছে। ওই ম্যাচের চেয়ে ফাইনাল ম্যাচে আরও বেশি আক্রমণাত্মক ছিল মেয়েরা।


ঢাকা, রবিবার, জুন ১০, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ২২৩৭ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন