সর্বশেষ
মঙ্গলবার ২৯শে কার্তিক ১৪২৫ | ১৩ নভেম্বর ২০১৮

আমাকে ছেড়ে যেও না, বাচ্চাদের প্রতি একটু দয়া করো: শ্রাবন্তী

রবিবার, জুলাই ১, ২০১৮

srabonti-20180701120639.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

এক সময়ের জনপ্রিয় মডেল ও অভিনেত্রী ইপশিতা শবনম শ্রাবন্তী। ২০১০ সালের ২৯ অক্টোবর শ্রাবন্তী বিয়ে করেন মোহাম্মদ খোরশেদ আলমকে। যিনি বর্তমানে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের সহকারী অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত আছেন।

শ্রাবন্তীর সংসার এখন ভাঙ্গনের মুখে। স্বামী মোহাম্মদ খোরশেদ আলম গত ৭ মে তার নামে তালাকের নোটিশ পাঠিয়েছেন। কিন্তু তালাক নিয়ে শ্রাবন্তী বলছেন অন্য কথা। তিনি চান তার সংসার টিকে থাকুক। তার ভাষায়, আপনারা আমার সংসারটা বাঁচান, আমি সংসার ভাঙতে চাই না।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, তাদের দাম্পত্য জীবন ভেঙে যাচ্ছে! গত ৭ মে শ্রাবন্তীকে তালাকের নোটিশ পাঠিয়েছেন তার স্বামী মোহাম্মদ খোরশেদ আলম। বগুড়া সদরের কালীতলার শিববাড়ি সড়কে শ্রাবন্তীর বাবার বাসার ঠিকানায় এই নোটিশ পাঠানো হয়।

গতকাল শনিবার রাতে শ্রাবন্তী এ নিয়ে নিজের ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, ‘কেন এমন করছ? দাও না আমাদের মাফ করে। এক ঘর দরকার নাই, কিন্তু এক ছাদের নিচে থাকি আমরা। বাচ্চাদের প্রতি একটু দয়া করো।’ ওই স্ট্যাটাসে শ্রাবন্তী আরও লিখেছেন, ‘তুমি তো প্রতিজ্ঞা করেছিলে, কখনও ছেড়ে যাবে না। এখন কেন ছেড়ে গেছ? আমাদের বাচ্চাদের ভাঙা পরিবারে বড় হতে দিয়ো না। আমি তোমার কাছে হাত জোড় করে বলছি, আমাদের বাচ্চাদের মানসিকভাবে ভেঙে দিয়ো না।’

অভিনয় ছেড়ে শ্রাবন্তী দীর্ঘদিন যাবৎ যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী। গত ২৫ জুন তিনি দেশে ফিরেছেন। এখন আছেন বগুড়ায়।

বগুড়া থেকে ৪ জুলাই মেয়েদের সঙ্গে নিয়ে ঢাকায় ফিরবেন শ্রাবন্তী। এরই মধ্যে গত ২৬ জুন রাজধানীর খিলগাঁও থানায় তিনি স্বামীর বিরুদ্ধে নারী নির্যাতন আর যৌতুকের মামলা করেছেন।

শ্রাবন্তী জানিয়েছেন, তার মা লিভার সিরোসিসে ভুগছেন। এখন খুবই অসুস্থ। যুক্তরাষ্ট্রে থাকতেই স্বামীর পাঠানো তালাকের এই নোটিশের খবর পেয়েছেন শ্রাবন্তী। এরপর দ্রুত দুই মেয়েকে সঙ্গে নিয়ে দেশে এসেছেন। তাদের বড় মেয়ে রাবিয়াহ আলমের বয়স সাত আর ছোট মেয়ে আরিশা আলমের সাড়ে তিন বছর।


ঢাকা, রবিবার, জুলাই ১, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ৮৭৭০ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন