সর্বশেষ
মঙ্গলবার ৬ই অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ২০ নভেম্বর ২০১৮

‘বাবার সঙ্গে কথা বলতে চাই, বাবা কেন এমন করে?’

সোমবার, জুলাই ২, ২০১৮

Dhaka300320180702150400.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

জনপ্রিয় অভিনেত্রী ইপসিতা শবনম শ্রাবন্তী। দীর্ঘদিন ধরেই যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করছেন। অভিনয় থেকেও দূরে রয়েছেন তিনি। যুক্তরাষ্ট্রে থাকতেই গত ৭ মে স্বামী মোহাম্মদ খোরশেদ আলম শ্রাবন্তীর বাবার বাসার ঠিকানায় তালাকের নোটিশ পাঠান। এ খবর পেয়ে গত ২৫ জুন দেশে ফিরেছেন এই অভিনেত্রী। বর্তমানে বগুড়ায় রয়েছেন তিনি।

এ নিয়ে গতকাল রোববার শ্রাবন্তী তার ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন। এতে তার সংসার রক্ষা করতে চাচ্ছেন বলে জানান তিনি। পাঠকদের জন্য শ্রাবন্তীর স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো-‘সত্য মিথ্যা অনেক কথা আসবে কিন্তু একজন মা আর একজন মানুষ হিসেবে আমার একটাই চাওয়া আমার সাথে আমার সন্তানদের সাথে কোন অন্যায় না হোক। আমার বাচ্চারা ব্রোকেন ফ্যামিলিতে বড় না হোক, এর রেজাল্ট কখনোই ভালো হয় না। ভুল আমারও আছে, খোরশেদ আলমেরও আছে, তাই বলে ডিভোর্স করে আলম বাচ্চাদের সাথে আমার সাথে এমন অন্যায় করতে পারে না।

আমাকে হুমকি দেয়া হচ্ছে আমার বিরুদ্ধে মানহানি মামলা করবে। আমার হাজব্যান্ড এর সাথে কথা বলব, সংসার ভাঙবে আর আমি তা মেনে নিয়ে চুপ করে থাকব তাই না? খোরশেদ আলম আমার সব জেনে শুনে আমাকে বিয়ে করেছিল। আর ৭ বছর পর তা নিয়ে আমাকে ব্লেম করে যাবে তা মানা যায় না। সবকিছুর আগে আমি একজন মা আলম একজন বাবা এটা আমাদের ভুলে যাওয়া উচিত না।বাচ্চাদের কোনো দোষ নেই। ওদের মাকেও প্রয়োজন, বাবাকেও প্রয়োজন।ওরা অলরেডি সিক। সো প্লিজ সবাই দোয়া করবেন আমার বাচ্চারা যেন সুস্থ থাকতে পারে।

ওরা মা-বাবা দুজনকেই যেন কাছে পায়। একজন শিক্ষক হয়ে এমন অন্যায় যেন আলম আমাদের সাথে না করে। সেই মহিলা নিজেও সংসার মনোযোগ দিয়ে করুক আমাকে উল্টা হুমকি না দিয়ে। উপরে আল্লাহ আছেন। সবকিছু সুন্দরভাবে হোক। আমার বাচ্চাদের সাথে অন্যায় না হোক এটাই আমার চাওয়া। আলম সুন্দরভাবে অন্যায় না করে অনেস্টলি সবকিছু থেকে সরে আসুক। নিজের ফ্যামিলি রক্ষা করুক একজন শিক্ষক হয়ে এটা চাই। সাংবাদিক ভাই ও বোনেরা কেউ ভুল নিউজ করবেন না। আমি যা বলার এখানেই বলে দিলাম। পারলে আমার সংসারটাকে রক্ষা করতে সাহায্য করুন।

আমি এখনো জোর গলায় বলতে চাই আমার সাথে আর আমার বাচ্চাদের সাথে অন্যায় করা হচ্ছে।এই জাতি যেন অন্যায়কে সমর্থন না করে। আমি আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাহায্য চাই কারণ তিনিও একজন নারী, তিনিও একজন মা। তিনিও নিশ্চয় চাইবেন না একজন মা ও তার বাচ্চাদের সাথে অন্যায় হোক। আমাদের জন্য সবাই দোয়া করবেন প্লিজ।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অভিনেত্রী শ্রাবন্তী বলেন, ‘এই বিষয়টির পর আমার বাচ্চারা অসুস্থ হয়ে গেছে। ছোট বাচ্চাটা ঘুমের মধ্যে বাবা বাবা করে উঠে। ওরা চাচ্ছে ওদের বাবার সঙ্গে ঘুড়বে ঘুমাবে। কিন্তু তা করতে পারছে না।’

বিষয়টি নিয়ে খোরশেদ আলমের পরিবারের কারো সঙ্গে কথা বলেছেন কিনা? উত্তরে শ্রাবন্তী বলেন, ‘‘এখানে অল ইন অল হচ্ছে আলম। তার সিদ্ধান্তই সবকিছু। এটা সম্পূর্ণ তার নিজের সিদ্ধান্ত। গত চার মাস আমার সঙ্গে কোনো যোগাযোগ করেনি আলম। মাঝে মাঝে আমার বড় মেয়েটা বলে, ‘বাবার সঙ্গে কথা বলতে চাই, বাবা কেন এমন করে?’ এরপর আলমকে মেসেজ পাঠাই। মেয়েটি এ বিষয়ে কথা বললে, তাকে বকা দেয় আলম। ডিভোর্স দিবে এটা আমাকে জানায়ওনি। এটা আগে আমাকে বলতে পারত যে, আমাদের হচ্ছে না- আসো এটার সমাধান করি। এসব কিছুই বলেনি। আমেরিকায় আমাকে টিকিট পাঠানোর কথা বলে ডিভোর্সের ছবি তুলে পাঠায়। এখন আল্লাহর উপর ভরসা করে আছি।’’

এদিকে বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে মোহাম্মদ খোরশেদ আলমের মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন করলেও তিনি কল রিসিভ করেননি।

২০১০ সালের ২৯ অক্টোবর শ্রাবন্তীর সঙ্গে বিয়ে হয় মোহাম্মদ খোরশেদ আলমের। এই দম্পতির ঘরে দুটি কন্যা সন্তান রয়েছে। বড় মেয়ে রাবিয়াহ আলমের বয়স ৭ আর ছোট মেয়ে আরিশা আলমের সাড়ে ৩ বছর।

সূত্র: রাইজিংবিডি


ঢাকা, সোমবার, জুলাই ২, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ২৬৯৬ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন