সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ১লা অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ১৫ নভেম্বর ২০১৮

৩ সিটিতেই আওয়ামী লীগ প্রার্থীর বিজয় দেখছেন জয়

রবিবার, জুলাই ২৯, ২০১৮

533da6c2d7dc25c8d46340628f95270b-57980b6957964.jpeg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

বরিশাল, রাজশাহী ও সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী জিতবেন বলে আশা প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে ও তার তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

রবিবার (২৯ জুলাই) এক জনমত জরিপের ফল তুলে ধরে নিজের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে এ তথ্য জানান সজীব ওয়াজেদ জয়। জরিপটি করেছে স্বতন্ত্র গবেষণা সংগঠন রিসার্চ ডেভেলপমেন্ট সেন্টার (আরডিসি)

সজীব ওয়াজেদ জয় বলেন, গত পাঁচ বছর ধরে আরডিসির মাধ্যমে আমরা জরিপ পরিচালনা করছি। তাদের জরিপের পদ্ধতি ও ফল বরাবরই আমার সঠিক মনে হয়েছে। তিনি বলেন, আমাদের মনে রাখতে হবে যে, যেহেতু জরিপগুলো গত এক মাস ধরে করা হয়েছে এবং এর মধ্যে নির্বাচনী প্রচার জোরেশোরে চলেছে, তাই জরিপ ও নির্বাচনের ফলে কিছুটা তফাৎ হতে পারে। কিন্তু আমি আত্মবিশ্বাসী যে বরিশাল ও রাজশাহীতে আওয়ামী লীগ বিশাল ব্যবধানে জয়ের পথে। যদিও সিলেটে আমরা কিছুটা এগিয়ে আছি।

জয় বলেন, আমি আমাদের দলীয় নেতাকর্মী, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য ও নির্বাচনের দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বান জানাব, তারা যেন সজাগ থাকেন। কারণ আমাদের আশঙ্কা বিএনপি ভোটকেন্দ্র দখল করে জালভোট দিয়ে সেই দায় আমাদের ওপর চাপানোর চেষ্টা চালাবেন।

জরিপের ফল এখানে হুবহু দেয়া হল-

বরিশাল

সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ (আওয়ামী লীগ) : ৪৪.০%

মজিবর রহমান সরোয়ার (বিএনপি) : ১৩.১%

অন্যান্য প্রার্থীরা : ০.৮%

সিদ্ধান্তহীন : ২৩.৫%
উত্তর দেননি : ১৫.৯%

বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের ১২৪১ নিবন্ধিত ভোটারের মধ্যে এ জরিপটি চালানো হয়।

রাজশাহী

খায়রুজ্জামান লিটন (আওয়ামী লীগ): ৫৮.০%

মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল (বিএনপি): ১৬.৪%

অন্যান্য প্রার্থীরা : ০.৯%

সিদ্ধান্তহীন : ১২.৩%

উত্তর দেননি : ৯.৬%
রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের ১২৯৪ নিবন্ধিত ভোটারের মধ্যে এ জরিপটি চালানো হয়।

সিলেট

বদরউদ্দিন আহমদ কামরান (আওয়ামী লীগ) : ৩৩.০%

আরিফুল হোক চৌধুরী (বিএনপি) : ২৮.১%

অন্যান্য প্রার্থীরা : ১.৩%

সিদ্ধান্তহীন : ২৩.০%
উত্তর দেননি : ১২.৬%

সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ১১৯৬ নিবন্ধিত ভোটারের মধ্যে এ জরিপটি চালানো হয়।

বরিশাল, রাজশাহী ও সিলেট শহরের ২০১১ সালের আদমশুমারির বয়স বিভাজন এবং সিটি করপোরেশনগুলোর ভোটার তালিকার ভিত্তিতে জরিপ পরিচালনা করা হয়। ভোটার নিবন্ধনের তালিকায় থাকা ঠিকানা ধরে জরিপের অংশগ্রহণকারী নির্বাচন করা হয়। এই তিন সিটি করপোরেশনে যাদের নাম ভোটার তালিকায় রয়েছে তাদেরকেই শুধু জরিপে প্রশ্ন করা হয়েছে। এই জরিপের ‘মার্জিন অব এরর’ হতে পারে প্রায় +/- ২.৫ %।


ঢাকা, রবিবার, জুলাই ২৯, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ৯২৪ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন