সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ৫ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

নন্দীগ্রামে ২০০ হেক্টর জমির আমন ধানের চারা পানির নিচে

বুধবার, আগস্ট ১, ২০১৮

Pic5.jpg
নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি :

নাগর নদীর পানি বেড়ে ও দ্যৈয়নারা খালের বাঁধ ভেঙ্গে বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার দুটি ইউনিয়নের প্রায় দুইশ হেক্টর জমির আমন ধানের চারা পানির নিচে তলিয়ে গেছে। দুর্ভোগে পড়েছে ১১টি গ্রামের প্রায় ৭ শতাধিক পরিবার।

গত কয়েকদিনে ভারি বর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা পানিতে উপজেলার পশ্চিম সীমান্তের নাগর নদী ভেসে যায়। এতে করে থালতা মাঝগ্রাম ইউনিয়নের দ্যৈয়নারা খালের বাধ ভেঙ্গে যায়। ফলে পাশের গ্রামের মাঠগুলোতে পানি ঢুঁকে পড়ে। এছাড়া কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে ভাটরা ইউনিয়নের কয়েকটি গ্রামের মাঠ পানিতে প্লাবিত হয়েছে। ফলে চাষকৃত ফসল হুমকির মুখে পড়েছে।

আজ বুধবার বিকেলে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, উপজেলার থালতা মাজগ্রাম ইউনিয়নের পারঘাটা, পারশুন, বনগ্রাম ও ভাটরা ইউনিয়নের নাগরকান্দি, দমদমা, ডেওবাড়ি, বৃষ্ণপুর, চাতরাগাড়ি, কালিয়াগাড়ি, উমাপতিদীঘি’র মাঠ পানিতে থৈ-থৈ করছে। পানিতে তলিয়ে গেছে কমপক্ষে দুইশ হেক্টর জমির আমন ধানের চারা। এছাড়া প্রায় ১০০ টি পুকুর পানিতে তলিয়ে গেছে।

দমদমা গ্রামের আবুল হোসেন, আইয়ুব আলী জানান, এই এলাকার বেশিরভাগ কৃষকের জমি এখন পানির নিচে। তারা অবিলম্বে নাগরনদী খননের দাবি জানান। তাদের অভিযোগ, নাগর নদীর দিকে পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষের নজর নেই।

উপজেলা কৃষি অফিসার মুহা. মশিদুল হক জানান, গত কয়েক দিনের টানা বর্ষণে উপজেলায় জলাবদ্ধতায় সৃষ্টি হয়েছে। এতে প্রায় ২০০ হেক্টর জমির আমন চারা তলিয়ে গেছে।


ঢাকা, বুধবার, আগস্ট ১, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // উ জ এই লেখাটি ২৩৮ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন