সর্বশেষ
সোমবার ৯ই আশ্বিন ১৪২৫ | ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

'ভারত থেকে বোমারু মিজানকে শিগগিরই দেশে আনা হবে'

শুক্রবার, আগস্ট ১০, ২০১৮

image-71619.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

বন্দিবিনিময় চুক্তির মাধ্যমে ভারত-বাংলাদেশের আটক অপরাধীদের একে অপরের বিনিময় হয়ে থাকে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সেই চুক্তির আওতায় খুব শিগগিরই ভারতে গ্রেপ্তার হওয়া বাংলাদেশের সন্ত্রাসী বোমারু মিজানকে দেশে ফিরিয়ে আনা হবে।

শুক্রবার (১০ আগস্ট) রাজধানীর তেজগাঁওয়ে নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ তথ্য জানান মন্ত্রী।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ভারতের সঙ্গে আমাদের আইন রয়েছে। আমাদের মধ্যে বন্দী বিনিময় চুক্তি রয়েছে। আমরা সময় মতো তাকে (মিজান) নিয়ে আসবো।

গত ৬ আগস্ট জাহিদুল ইসলাম ওরফে সুমন ওরফে বোমারু মিজান ওরফে মুন্না ওরফে কাওসারকে গ্রেপ্তার করে ভারতের জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা (এনআইএ)। তিনি বাংলাদেশের নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠন জামা’আতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) শীর্ষ নেতা।

এনআইএ জানিয়েছে, বোমারু মিজান ২০১৪ সালের ২ অক্টোবর পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান ও ২০১৮ সালের ১৯ জানুয়ারি বিহারের বুদ্ধগয়াতে বোমা হামলার ঘটনায় জড়িত।

২০১৪ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি ময়মনসিংহের ত্রিশালে প্রিজন ভ্যানে হামলা চালিয়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত জঙ্গি সালাউদ্দিন সালেহীন ওরফে সানি ও রাকিবুল হাসান ওরফে হাফেজ মাহমুদের পাশাপাশি যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত মিজানকেও ছিনিয়ে নেয় জঙ্গিরা। পরে রাকিবুল হাসান ধরা পড়লে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হন তিনি। আর বাকিদের খোঁজ পাওয়া যায়নি। এরা ভারতে পালিয়ে গেছেন বলে সে সময়ই গণমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশ হয়। আর গত সোমবার ব্যাঙ্গালুরুর এক গোপন আস্তানা থেকে মিজানকে গ্রেপ্তার করে দেশটির জাতীয় তদন্ত সংস্থা-এনআইএ।

২০০৫ সালে সারাদেশে জেএমবির একযোগে বোমা হামলা চালানোর সময় চট্টগ্রামে হামলাগুলোতে নেতৃত্ব দেন মিজান। একটি মামলায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ছাড়াও তিনি ১৮ মামলার আসামি। মিজান তেজগাঁও পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ছাত্র ছিল। তার বাড়ি জামালপুরের মেলান্দহে।


ঢাকা, শুক্রবার, আগস্ট ১০, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ৪৬২ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন