সর্বশেষ
বুধবার ৪ঠা আশ্বিন ১৪২৫ | ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮

জাতীয় শোক দিবসে সুদৃঢ় নিরাপত্তা দিবে ডিএমপি

মঙ্গলবার, আগস্ট ১৪, ২০১৮

19_0.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

রাত পোহালে শোকাবহ ১৫ আগস্টের প্রথম প্রহর। শোকাবহ ১৫ আগস্ট শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করবে পুরো জাতি। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪৩ তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসকে ঘিরে সমন্বিত, সুদৃঢ় ও নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা দিবে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ।

১৫ আগস্ট পালন উপলক্ষে আজ ১৪ আগস্ট সকাল ১১টায় ধানমন্ডি ৩২ নম্বর ও ঢাকা মহানগরকে ঘিরে আইন-শৃঙ্খলা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত প্রেস ব্রিফিংয়ে উপস্থিত গণমাধ্যমকর্মীদের এমনটি জানান ডিএমপি কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া বিপিএম (বার), পিপিএম।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু ও ১৫ আগস্টে নিহত তার পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে কমিশনার বলেন, '১৫ আগস্টকে ঘিরে আমরা ব্যাপক সমন্বিত ও সুদৃঢ় নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছি। আগস্ট আমাদের শোকের মাস। সারাদেশে যথাযথ মর্যাদা ও গভীর ভাব-গাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পালন করা হবে আমাদের জাতীয় শোক দিবস। বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর কেন্দ্রিক বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে সকাল সাড়ে ৬টায় মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী ফুল দিয়ে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করবেন। ভিভিআইপি, ভিআইপি এবং উধ্বর্তন সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তাবৃন্দ শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করার পর বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, দল, সংগঠন এবং সর্বসাধারণ জন্য শ্রদ্ধাজ্ঞাপনের লক্ষ্যে উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন বেদী।'

ডিএমপি কমিশনার বলেন, 'জাতীয় শোক দিবসকে ঘিরে প্রতিটি অনুষ্ঠানে আমাদের নিরাপত্তা থাকবে। নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা দিতে ডিএমপি’র পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে কয়েক স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা। ধানমন্ডি ৩২নং ও তার আশপাশ এলাকায় থাকবে পর্যাপ্ত সিসিটিভি ক্যামেরা। দুইটি কন্ট্রোলরুম থেকে সার্বক্ষণিক সিসি ক্যামেরা রিয়েল টাইম মনিটরিং করা হবে। প্রতিটি প্রবেশ গেটে থাকবে আর্চওয়ে। প্রত্যেক দর্শনার্থীকে আর্চওয়ে ও নিরাপত্তা বেষ্টনির মধ্য দিয়ে ভেতরে প্রবেশ করতে হবে।'

তিনি আরও বলেন, 'বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর এবং বনানী কবরস্থানে ভিভিআইপি, ভিআইপি ও বিদেশী কূটনৈতিক মিশনের কর্মকর্তাসহ জনসমাগম হওয়ার সম্ভাব্য স্থানের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। পোশাকে ও সাদা পোশাকে মোতায়েন থাকবে পর্যাপ্ত সংখ্যক পুলিশ। পুলিশের ও র‌্যাবের ডগ স্কোয়াড দিয়ে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর এবং ঢাকার বনানীস্থ কবরস্থান সুইপিং করা হবে। আরও থাকবে ফায়ার টেন্ডার, এ্যাম্বুলেন্স ব্যবস্থা।'

নগরবাসীর প্রতি অনুরোধ জানিয়ে কমিশনার বলেন, 'জাতীয় শোক দিবসের নিরাপত্তার স্বার্থে কোন প্রকার ট্রলিব্যাগ, ব্যাকপ্যাক, টিফিন ক্যারিয়ার, ফ্লাক্স, ছুরি, চাকু, দাহ্য পদার্থ, গ্যাসলাইট, অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে আসা যাবে না। রাস্তায় বিভিন্নস্থানে পুলিশি তল্লাশীর মাধ্যমে আপনাকে ধানমন্ডি ৩২ ও বনানী কবরস্থানে আসতে হবে। দ্রুততম সময়ে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করে অন্যকে সুযোগ দিবেন।'

শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতির সামনে সেলফি তোলা থেকে সকলকে অনুরোধ করেন। জাতীয় শোক দিবসের ভাব-গাম্ভীর্য বজায় রাখার আহবান জানান ডিএমপি কমিশনার।

সূত্র: ডিএমপি নিউজ


ঢাকা, মঙ্গলবার, আগস্ট ১৪, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // জে এইচ এই লেখাটি ৮৫৪ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন