সর্বশেষ
শুক্রবার ২রা অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ১৬ নভেম্বর ২০১৮

টাঙ্গাইলে মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তারকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, ৬ পুলিশ আহত

রবিবার, সেপ্টেম্বর ২, ২০১৮

tttttt.png
টাঙ্গাইল প্রতিনিধি :

টাঙ্গাইলের গোপালপুরে মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তারকে কেন্দ্র করে পুলিশ ও এলাকাবাসীর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

গ্রেপ্তারকৃত মাদক ব্যবসায়ীকে ছাড়িয়ে নিতে পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় পুলিশ ২৭ রাউন্ড গুলি ছুড়েছে। এতে ৬ পুলিশসহ অন্তত ২০জন আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে দুই পুলিশ সদস্যকে গোপালপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

গোপালপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাসান আল মামুন জানান, শনিবার রাতে গোপালপুর পৌর এলাকার কোনাবাড়ি এলাকায় অভিযান চালিয়ে পুলিশ শফিকুল নামে এক যুবককে ৩৭ পিস ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করে। তার নামে মাদকদ্রব্য আইনে মামলা করা হয়। রোববার সকালে গ্রেফতারকৃত শফিকুলের কোনবাড়ী গ্রামবাসী রাস্তা অবরোধ করে যানবাহন ভাংচুর শুরু করে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ২৭ রাউন্ড ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে। এসময় উত্তেজিত গ্রামবাসীর ইটপাটকেল নিক্ষেপে ৬ পুলিশ সদস্য আহত হয়। আহতদের মধ্যে ২ পুলিশ সদস্যকে গোপালপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এসময় ঘটনাস্থল থেকে সুমন ও সোহেল নামে দুইজনকে আটক করে পুলিশ।

এই ব্যাপারে গোপালপুর পৌরসভার মেয়র রকিবুল হক সানা জানান, নিরীহ মসলা মিলের মালিক শফিকুলকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। রোববার সকালে তার স্বজনরা গোপালপুর থানায় শফিকুলকে দেখতে গেলে পুলিশের সাথে কথাকাটাকাটির ঘটনা ঘটে। এক পর্যায়ে পুলিশ তাদের উপর লাঠিচার্জ করে। এতে ১২ বছরের এক কিশোরীর হাত ভেঙ্গে যায়। এ খবর কোনাবাড়ী গ্রামবাসীর মধ্যে ছড়িয়ে পড়লে মূহুর্তের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। পরে বিক্ষুদ্ধ গ্রামবাসী মিছিল করে  রাস্তা অবরোধ করে রাখে। পুলিশ কোনাবাড়ি গ্রামে গিয়ে তাদের ছত্রভঙ্গ করতে ২৭ রাউন্ড গুলি ছুড়ে এবং বাড়ি বাড়ি গিয়ে পুলিশ নারী ও শিশুদের উপর লাঠিচার্জ করে।

এলাকাবাসীর দাবি, পুলিশ মাঝে মধ্যেই নিরীহ লোকজনকে মাদক ব্যবসায়ী বানিয়ে গ্রেপ্তার অভিযান চালায়। কোনাবাড়ী এলাকা থেকে যাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে তারা কেউই মাদকের সাথে জড়িত নয়।

মুক্তার হাসান, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি



ঢাকা, রবিবার, সেপ্টেম্বর ২, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ৬৫৮ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন