সর্বশেষ
শুক্রবার ২রা অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ১৬ নভেম্বর ২০১৮

হাতের রেখায় প্রেম-বিয়ে!

শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৮

marriage-128865.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

ভাগ্যচক্র নিয়ে অনেক বিতর্ক থাকলেও মানুষের কাছে এর তাৎপর্য কিন্তু অনেক। বেশিরভাগ লোকজনই হস্তরেখায় ভাগ্যের বার্তাকে কুসংস্কার বলে অভিহিত করলেও অনেকেই হাত দেখাতে জ্যোতিষীর শরণাপন্ন হন। তবে হস্তরেখাবিদদের কাছে না গিয়েই নিজেই হাতের রেখা দেখে জেনে নিতে পারেন ‘হস্তরেখা বিদ্যা’ অনুযায়ী আপনার ভবিষ্যৎ। হস্তরেখাবিদরা যেই রেখাকে প্রেম ও বিয়ের রেখা বলে অভিহিত করেন, চলুন সেই রেখা সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক।

 ১. হাতের সবচেয়ে ছোট আঙুল বা কনিষ্ঠার নীচে বুধপর্বতের শেষে কিছু আঁকাবাঁকা রেখা থাকে, একেই নাকি বলা হয় বিবাহ রেখা। এই রেখার ওপর ভিত্তি করেই কোনো ব্যক্তির প্রেম থেকে পরিণয় সম্পর্কে জানা যায়। এই রেখা যার যত পরিষ্কার এবং স্পষ্ট, বৈবাহিক জীবন তার ততোটাই সুখে কাটে বলে মত কারও কারও।

২. যে ব্যক্তির বুধপর্বতে রেখার সংখ্যা বেশি, তারা বহুবার প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। সবচেয়ে স্পষ্ট যেটি তাকেই বিয়ের রেখা হিসেবে ধরে নেয়া হয়। তবে রেখা স্পষ্ট না হলে তা নিয়ে বলা মুশকিল।
 
৩. বিবাহরেখা নিচের দিকে নেমে গেছে এমন হলে দাম্পত্য জীবন মসৃণ নাও হতে পারে।

৪. শুরুতেই বিবাহ রেখা দু’টি শাখায় ভাগ হলে ভাঙতে পারে সেই বিয়ে। বিয়ের রেখা কাটা হলেও বিবাহ বিচ্ছেদের সম্ভাবনা থাকে। আর এক্ষেত্রে ওই ব্যক্তির দ্বিতীয় বিয়ের সম্ভাবনাও কিন্তু থাকে।

৫. দু’টি বিবাহ রেখা থাকলে এবং ভাগ্য রেখা থেকে বেরিয়ে তার একটি শাখা হৃদয় রেখায় মিললে সেই ব্যক্তির একাধিক বিয়ের যোগ থাকতে পারে।


ঢাকা, শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ৩০২৫ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন