সর্বশেষ
সোমবার ২৬শে অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ১০ ডিসেম্বর ২০১৮

'আমাদের ছোট্ট ছেলেটাকে পুড়িয়ে দিয়েছি, সে মুহূর্ত ভোলার নয়'

শনিবার, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৮

Sumeet-Sachdev.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

‘আমরা আমাদের ছোট্ট ছেলেটাকে পুড়িয়ে দিয়েছি। সে মুহূর্ত ভোলার নয়…।’ সন্তানের মৃত্যু হয়েছে। তাকে ঘিরে তৈরি হওয়া ভবিষ্যতের যাবতীয় স্বপ্নের ইতি। জীবনের এ হেন ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতার কথা সম্প্রতি প্রকাশ্যে শেয়ার করলেন অভিনেতা সুমিত সচদেব।

হিন্দি টেলিভিশনের অত্যন্ত জনপ্রিয় মুখ সুমিত। মাস খানেক আগে তাঁর স্ত্রী অমৃতা গুজরালের গর্ভপাত হয়। তার পরবর্তী যন্ত্রণার কথা সম্প্রতি সাংবাদিকদের জানিয়েছেন সুমিত।

স্পটবয়ই-এর খবর অনুযায়ী সুমিত বলেন, ‘‘জীবনের কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছি আমি আর অমৃতা। আমাদের ছোট্ট ছেলেটার শেষকৃত্য করেছি। অমৃতা ওর জন্য সুন্দর একটা দোলনা তৈরি করেছিল। ওর মাথায় একটা নীল রুমাল বেঁধে দিয়েছিলাম। দোলনায় কিছু চকোলেট আর একটি চিঠিও দিয়ে দিয়েছিলাম। আর একটা ফ্যামিলি ট্রি সাজিয়ে দিয়েছিলাম পাশে। তার পরই ওকে পুড়িয়ে দিতে হল…।’’

সুমিত জানিয়েছেন, সময়ের আগেই অমৃতার গর্ভের জল ভেঙে যায়। সব ফ্লুয়িড বেরিয়ে যাওয়ায় শিশুকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি। আর গোটা ঘটনার জন্য অমৃতার অফিসের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে দায়ী করেছেন দম্পতি। অমৃতার ওপর অত্যধিক মানসিক চাপের কারণেই এই ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি করেছেন তাঁরা। এ বিষয়ে পুলিশে অভিযোগও দায়ের করেছেন দম্পতি। সুমিতের দাবি, ‘‘আমরা ক্ষতিপূরণ চাই না। অমৃতার বস যা করেছেন, তার জন্য তাঁর শাস্তি চাই।’’

ঠিক কী হয়েছিল অমৃতার অফিসে? সুমিত জানিয়েছেন, গোয়ার একটি হোটেলের মুম্বই শাখায় সেলস এবং মার্কেটিংয়ের ভাইস প্রেসিডেন্টের পদে কাজ করতেন অমৃতা। সন্তানসম্ভবা হওয়ার পর শারীরিক কিছু সমস্যার কারণে চিকিত্সকের পরামর্শ অনুযায়ী, বাড়ি থেকে কাজ করছিলেন তিনি। হঠাত্ই জরুরি মিটিংয়ে তাঁকে গোয়ায় যেতে বলা হয়। গোয়ায় গিয়ে অমৃতা দেখেন, তাঁরই পরিচিত এক মহিলার সঙ্গে তাঁর বস বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছেন। সেই সম্পর্কে জটিলতা তৈরি হওয়ায় অমৃতাকে সমাধানের জন্য ডেকে পাঠানো হয়। কিন্তু অফিশিয়াল কোনও কাজ না থাকায় ওই ঘটনায় নিজেকে জড়াতে চাননি অমৃতা।

পরে বসের স্ত্রী গোটা ঘটনা জানতে পেরে, অমৃতাকে দায়ী করতে থাকেন। কেন অমৃতা আগে থেকেই এই খবর তাঁকে দেননি, সে ব্যাপারে অভিযোগ জানাতে থাকেন। গোটা ঘটনায় ভেঙে পড়েন অমৃতা। তার পরই তাঁর গর্ভপাত হয়। এর পর কোনও কারণ ছাড়াই অমৃতার চাকরি চলে যায়। গোটা ঘটনায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়েন তিনি। সূত্র: আনন্দবাজার


ঢাকা, শনিবার, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ৭৭৭৫ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন