সর্বশেষ
মঙ্গলবার ৪ঠা পৌষ ১৪২৫ | ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮

কুয়েত থেকে পেট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র প্রত্যাহার আমেরিকার

রবিবার, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৮

1_0.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

কুয়েতে মোতায়েন দুটি পেট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ইউনিট প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে আমেরিকা। কেন এ ব্যবস্থা প্রত্যাহার করা হচ্ছে সে সম্পর্কে পেন্টাগন কথা বলতে না চাইলেও কুয়েত মার্কিন পদক্ষেপকে ‘রুটিন ওয়ার্ক’ বলে দাবি করেছে।

পার্সটুডে'র প্রতিবেদনে বলা হয়, কুয়েতের সামরিক বাহিনীর চিফ অব স্টাফ লেফটেন্যান্ট জেনারেল মুহাম্মাদ আল-খুদেরের বরাত দিয়ে সৌদি গণমাধ্যম ‘আরব নিউজ’ বলেছে, কুয়েতের সেনাবাহিনীর সঙ্গে আলাচনা করে পেট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্রের ব্যাটারি প্রত্যাহার করা হয়েছে। তিনি বলেছেন, কুয়েতের পেট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র নিজেই স্বাধীনভাবে দেশের পুরো সীমান্ত রক্ষা করছে।

ব্যালিস্টিক ও ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রসহ সব ধরনের বিমান হামলার ঝুঁকি মোকাবেলার জন্য পেট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা ব্যবহার করা হয়।

মার্কিন গণমাধ্যম গত সপ্তাহে জানিয়েছে, মধ্যপ্রাচ্য থেকে মার্কিন সামরিক বাহিনী কিছু বিমান-বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র ও ব্যাটারি সরিয়ে আনছে। পাশাপাশি বাহরাইন ও জর্দান থেকেও একটি করে পেট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা সরিয়ে নেয়া হবে। ইরান, রাশিয়া ও চীনের সঙ্গে দীর্ঘদিনের উত্তেজনা থেকে দৃষ্টি সরিয়ে নেয়ার জন্য মার্কিন সামরিক বাহিনী এ পদক্ষেপ নিয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। তবে পেন্টাগনের সাংবাদিকরা বিষয়টি নিয়ে মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী জিম ম্যাটিসকে জিজ্ঞেস করলে তিনি এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে চান নি।

ইরানের প্রেস টিভি বলছে, যখন ইরানের বিরুদ্ধে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও যুদ্ধবাজ মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টনের শত্রুতাপূর্ণ বাগাড়ম্বর বেড়ে চলেছে এবং ইরান-বিরোধী কথিত 'আরব-ন্যাটো' জোট করতে যাচ্ছে তখন মধ্যপ্রাচ্যের কয়েকটি দেশ থেকে পেট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সরিয়ে নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হলো।


ঢাকা, রবিবার, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // জে এইচ এই লেখাটি ৬১০ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন