সর্বশেষ
বুধবার ২৮শে অগ্রহায়ণ ১৪২৫ | ১২ ডিসেম্বর ২০১৮

কক্সবাজারে পুলিশের সঙ্গে পৃথক ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৫

রবিবার, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৮

2_0.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

কক্সবাজারের টেকনাফ, মহেশখালী ও পার্শ্ববর্তী নাইক্ষ্যংছড়িতে পুলিশের সঙ্গে পৃথক ‘বন্দুকযুদ্ধে’ পাঁচজন নিহত হয়েছেন। পুলিশের দাবি তারা মদক ব্যবসায়ী ও ডাকাত।

রোববার ভোরে জেলার টেকনাফ উপজেলায় একজন, নাইক্ষ্যংছড়ির বাইশারিতে তিনজন এবং কক্সবাজারে একজন মারা যান।

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে তিনজনের নিহত:
রোববার নাইক্ষ্যংছড়ির বাইশারীর সাম্রাঝিড়ি এলাকার ৩নং রাবার বাগান বাড়ি থেকে তিনজনের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এসময় ঘটনাস্থল থেকে তিনটি একনলা বন্দুক ও একটি শটগান উদ্ধার করা হয়।

নিহতরা হলেন- আনোয়ার প্রকাশ আনাইয়্যা, মো. হামিদ ও মো. পারভেজ বাপ্পি। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, রাবার বাগান বাড়িতে গোলাগুলির শব্দ শুনে বাগান এলাকার শ্রমিকরা বাড়ির ভেতরে গিয়ে তিন ডাকাতের লাশ দেখতে পায়। পরে তারা পুলিকে খবর দিলে ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। ভাগবাটোয়ারা নিয়ে তাদের নিজেদের মধ্যে এই গোলাগুলি সংগঠিত হয়েছে বলে জানান তারা।

নাইক্ষ্যংছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলমগীর শেখ বলেন, ডাকাতদের নিজেদের মধ্যে গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে।

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ একজন নিহত:
টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নে রোববার ভোরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ইমরান প্রকাশ ওরফে পুতিয়া মিস্ত্রী নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। নিহত ইমরান উপজেলার নীলা পশ্চিম শিকদার পাড়ার আজিজুল হকের ছেলে। পুলিশের দাবি,  নিহত ইমরান একজন মাদক ব্যবসায়ী।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রঞ্জিত কুমার বড়ুয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মিয়ানমার থেকে ইয়াবার একটি বড় চালান এনে হ্নীলার দর্গারপাড়া এলাকায় মজুত করে রাখা হয়েছে, এমন সংবাদের ভিত্তিতে ভোরে অভিযান চালায় পুলিশ। এ সময় পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় মাদক ব্যবসায়ীরা। পরে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। একপর্যায়ে মাদক ব্যবসায়ীরা পালিয়ে গেলে ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় ইমরান প্রকাশের লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় পুলিশের চার সদস্য আহত হয়েছেন।

তিনি আরও জানান, ঘটনাস্থল থেকে ৩টি বিদেশি অস্ত্র ও ৭ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়ের করা হবে।

কক্সবাজারের তালিকাভুক্ত ইয়াবা ব্যবসায়ী মৃতদেহ উদ্ধার:
এর আগে ২৯ সেপ্টেম্বর অপর ঘটনায় কক্সবাজারের পাহাড়ে টেকনাফের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত ইয়াবা গডফাদার শামসুল আলম মার্কিনের গুলিবিদ্ধ মৃতদেহসহ অস্ত্র ও ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

জানা যায়, ২৯ সেপ্টেম্বর সকাল সাড়ে ৮টার দিকে খবর পেয়ে কক্সবাজার সদর থানা পুলিশের একটি দল কলাতলীস্থ কাটা পাহাড়ে গিয়ে পরিত্যক্ত অবস্থায় এক ব্যক্তির গুলিবিদ্ধ লাশ, একটি দেশীয় অস্ত্র ও ইয়াবা উদ্ধার করেন। পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে কক্সবাজার মর্গে প্রেরণ করে।


ঢাকা, রবিবার, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // জে এইচ এই লেখাটি ৩৯৩ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন