সর্বশেষ
শুক্রবার ৪ঠা শ্রাবণ ১৪২৬ | ১৯ জুলাই ২০১৯

ফয়েজ রেজা’র তথ্যচিত্র : শেখ হাসিনা দ্য লিডার

শনিবার, নভেম্বর ১০, ২০১৮

77.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সংগ্রামী জীবন নিয়ে এই প্রথম নির্মাণ করা হলো তথ্যচিত্র-শেখ হাসিনা দ্য লিডার। অতি সাধারণ এক বাঙালি বধূ থেকে শেখ হাসিনা কেমন করে হয়ে উঠলেন বাংলাদেশের স্বপ্নহীন মানুষের আশা-আকাঙ্খার প্রতীক।

অন্ন, বস্ত্র, চিকিৎসা ও আশ্রয়ের অভাবে পীড়িত মানুষকে কিভাবে নতুন প্রাণ শক্তিতে উজ্জীবিত করলেন? একটি অনুন্নত দেশে প্রতিকূল পরিবেশে সংগ্রাম করে কিভাবে আদায় করলেন সমাজের বঞ্চিত মানুষের অধিকার? সুদৃঢ় নেতৃত্বের মাধ্যমে কিভাবে সীমিত সম্পদের ভেতর থেকে একটি দরিদ্র দেশকে মধ্যম আয়ের পথে এগিয়ে নিলেন? কিভাবে আত্মমর্যাদাশীল জাতিতে রুপান্তরিত করলেন বাংলাদেশের মানুষকে?

তথ্যচিত্রটিতে সেই সত্য তুলে ধরেছেন নির্মাতা ফয়েজ রেজা। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট সপরিবারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যা করে বাংলাদেশে যখন জেঁকে বসে সামরিক শাসন, তখন দুই সন্তান ও বোন শেখ রেহানাসহ দেশের বাইরে থাকায় প্রাণে বাঁচেন শেখ হাসিনা।

তথ্যচিত্রটির শুরুতে দেখানো হয়েছে- ১৯৮১ সালে ১৭ মে শেখ হাসিনা দেশে ফিরে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দায়িত্ব নিয়ে কিভাবে দলকে পুনরায় গড়ে তুললেন, তারচিত্র। এরপর সাধারণ মানুষের ভাত-কাপড়ের অধিকার ও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে অংশ নিয়ে রাজপথে শেখ হাসিনার আন্দোলন, স্বৈরতন্ত্রের বিরুদ্ধে লড়াই এবং ১৯৯৬ সালে ভোটে নির্বাচিত হওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণের চিত্র।

শেখ হাসিনা বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর দরিদ্রতাকে বাংলাদেশের মূল সমস্যা হিসেবে চিহ্নিত করে তা দূর করার জন্য কিভাবে সংগ্রাম ও পরিশ্রম করেছেন, তা দেখানো হয়েছে। এরপর ২০০৯ সালে দ্বিতীয়বার ও ২০১৪ সালে তৃতীয়বার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেওয়ার পর শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ কিভাবে অর্থনীতির উন্নয়নসূচকে এগিয়ে গেলো, কিভাবে একটি উন্নত সমৃদ্ধ দেশের পথে অগ্রসর হচ্ছে বাংলাদেশ তা দেখানো হয়েছে।

১১ মিনিট ৩৩ সেকেন্ড ব্যপ্তি এই তথ্যচিত্রের গবেষণা করেছেন সাজিদ রায়হান, ধারা বর্ণনা দিয়েছেন আজাদ আবুল কালাম, মিউজিক কম্পোজিশন করেছেন মকসুদ জামিল মিন্টু, সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন তামান্না তাসমিয়া তুয়া।

সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে শেকড়ের সন্ধানে মেগাকনসার্টে ইতোমধ্যে তথ্যচিত্রটি দেখানো হয়েছে রংপুর জেলা স্কুলমাঠ, রাজশাহীর এ এইচ এম কামরুজ্জামান স্টেডিয়াম, খুলনার শেখ আবুনাসের স্টেডিয়াম, বরিশালের বিভাগীয় স্টেডিয়াম, চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়াম ও ঢাকায় বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে।

সাধারণত তথ্যচিত্র প্রদর্শিত হয় ছোট-বড় হলঘরে বা সিনেমা হলে। বাংলাদেশে এই প্রথম এতগুলো স্টেডিয়ামে এক সঙ্গে লাখ লাখ দর্শক উপভোগ করলো কোনো তথ্যচিত্র।


ঢাকা, শনিবার, নভেম্বর ১০, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ৮৯৮ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন