সর্বশেষ
সোমবার ১১ই ভাদ্র ১৪২৬ | ২৬ আগস্ট ২০১৯

থাইরয়েডের লক্ষণগুলো জেনে নিন

বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ২২, ২০১৮

thyroid.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

সব সময় শরীর অবসন্ন থাকা, রাত পর্যাপ্ত ঘুমানোর পরেও ক্লান্ত ভাব, চুল পড়া, গলা ফোলা-উপসর্গ মূলত সৃষ্টি হয় থাইরয়েডের সমস্যা থেকে। মানবশরীরের স্বরযন্ত্রের দুই পাশে থাকা একটি বিশেষ গ্রন্থি হল থাইরয়েড। এর কাজ হলো শরীরের অত্যাবশ্যকীয় হরমোন উৎপাদন করা। মানব শরীরে এর একটি নির্দিষ্ট মাত্রা থাকে। মাত্রাধিক বা কম, এই হরমোন উৎপাদিত হলেই শরীরে সৃষ্টি হয় বিরূপ প্রভাব।

থাইরয়েড হরমোন কম উৎপন্ন হলে বলা হয় হাইপোথাইরয়েডিসম এবং বেশি উৎপন্ন হলে বলা হয় হাইপারথাইরয়েডিসম। এ কারণগুলোই সৃষ্টি করে শারীরিক সমস্যার।

আসুন জেনে নেই থাইরয়েড সমস্যার লক্ষণগুলি কী কী :

১. খাওয়ার পরিমাণ ঠিক থাকার পরও হঠাৎ করেই শরীরের ওজন বেড়ে যাওয়া হাইপোথাইরয়েডিসমের কারণে হতে পারে। আর যদি শরীরের ওজন কমে যায় তবে হাইপারথাইরয়েডিসম থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। দুটি সমস্যার কারণেই থাইরয়েড হরমোনের পরীক্ষা করানো উচিত।

২. শরীর অবসন্ন লাগার একটি অন্যতম কারণ হতে পারে হাইপোথাইরয়েডিসম। সারা রাত পর্যাপ্ত ঘুমানোর পরেও যদি সকালে অবসন্ন লাগে অথবা সারা দিন ধরে ঝিমুনি আসে তাহলে থাইরয়েড হরমোন ঠিক মতো কাজ করছে কিনা পরীক্ষা করিয়ে নেওয়া উচিত।

৩. হাইপোথাইরয়েডিসম হলে অতিরিক্ত চুল পড়া, চুলের বৃদ্ধি কমে যাওয়ার মতো একাধিক সমস্যা দেখা দেয়। সময় মতো শনাক্ত করতে পারলে নির্দিষ্ট মাত্রার ওষুধ খেয়ে পুরোপুরি সুস্থ থাকা সম্ভব। লক্ষণ দেখা গেলে তা অবহেলা করে ফেলে না রেখে দ্রুত চিকিৎকের পরামর্শ নেওয়া উচিত।

৪. থাইরয়েড হরমোনের অভাবে অর্থাৎ হাইপোথাইরয়েডিসমের কারণে গলা ফুলে উঠতে পারে। গলায় হাত দিয়ে কোনও অস্বাভাবিক ফোলা কিছু পেলে দ্রুত চিকিৎকের পরামর্শ নেওয়া উচিত। এ ছাড়াও থাইরয়েড হরমোনের অভাবে গলার স্বর কিছুটা কর্কশ বা গম্ভীর হয়ে যেতে পারে।

৫. অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা করা হাইপারথাইরয়েডিসম-এর লক্ষণ হতে পারে। হাইপারথাইরয়েডিসম হলো শরীরে প্রয়োজনের চেয়ে বেশি থাইরয়েড হরমোন তৈরি হওয়া। সারাক্ষণ শরীরে অস্থির ভাব এবং বিশ্রামহীন বোধ হলে হাইপারথাইরয়েডিসমের সমস্যা আছে কিনা তা পরীক্ষা করানো দরকার।

৬. হাইপোথাইরয়েডিসমের কারণে ত্বক অতিরিক্ত শুষ্ক হয়ে যেতে পারে। হাইপোথাইরয়েডিসমের কারণে ঘাম কম হয় এবং ত্বক তার প্রয়োজনীয় আর্দ্রতা পায় না। ফলে ত্বক অতিরিক্ত শুষ্ক হয়ে যায়। হাইপোথাইরয়েডিসমের রোগীদের মধ্যে নখ ভাঙ্গার বা নখে ফাটল ধরার প্রবণতাও বেশি।


ঢাকা, বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ২২, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ৮৮৪ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন