সর্বশেষ
বুধবার ৯ই শ্রাবণ ১৪২৬ | ২৪ জুলাই ২০১৯

আমি কখনও হার মানিনি এখনও মানবো না: হিরো আলম

সোমবার, ডিসেম্বর ৩, ২০১৮

image-116621-1543463070.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

ফেসবুকে ভাইরাল বগুড়ার আশরাফুল ইসলাম আলম (হিরো আলম) বগুড়া-৪ আসনে জাতীয় পার্টির মনোনয়নপত্র কিনে দেশজুড়ে সাড়া ফেলে দেন। কিন্তু তার মনোনয়ন দেননি জাপা। পরে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোয়নপত্র জমা দেন তিনি। কিন্তু স্ই জালিয়াতির অভিযোগে রোববার বাতিল করা হয়  হিরো আলমের মনোনয়নপত্র।

হিরো আলমের মনোনয়ন বাতিলের বিষয়টি নিশ্চিত করেন নন্দীগ্রাম উপজেলা নির্বাচন অফিসার আশরাফ হোসেন। তিনি বলেন, ‘কেউ স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে মনোনয়নপত্র নিলে তাকে তার নির্বাচনী এলাকার মোট ভোটারের ১ শতাংশের স্বাক্ষর নিতে হয়। তবে হিরো আলম ভোটারদের স্বাক্ষর-সম্বলিত যে তালিকা জমা দিয়েছেন তা যাচাই করে অনেক অসঙ্গতি পাওয়া গেছে। এর মধ্যে বেশিরভাগ ভোটারদের ভুয়া স্বাক্ষরের তালিকা জমা দিয়েছেন তিনি। তাই তার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।’

এরপরই যোগাযোগ করা হয় হিরো আলমের সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘স্বতন্ত্র প্রার্থী থেকে দাঁড়ালে এক শতাংশ ভোটারের সাক্ষী লাগে। আমি আমার এলাকায় ৩১শ’ ভোটারের সাক্ষীর জায়গায় ৩৫শ’ ভোটারের সাক্ষর জমা দিয়েছি। এই সাক্ষীদের মধ্য থেকে দশজনকে তারা যাচাই করেছেন। এই দশজনের সাতজন সাক্ষরকারী ভোটারকে কর্তৃপক্ষ খোঁজে পেয়েছেন। বাকী তিনজনকে তারা খোঁজে পায়নি। ওই তিনজনের কারণে আমার প্রার্থীতা বাতিল করেছে। আমি হিরো আলম কখনও হার মানিনি। এখনও মানবো না। আমি উচ্চ আদালতে আপিল করবো। এরপর দেখা যাক কী হয়।’

গত ২৮ নভেম্বর বগুড়া-৪(কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নন্দীগ্রাম উপজেলার সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও ইউএনও মোছা. শারমিন আখতারের কাছে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছিলেন তিনি। সূত্র: সমকাল


ঢাকা, সোমবার, ডিসেম্বর ৩, ২০১৮ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ১৯০৫০ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন