সর্বশেষ
বুধবার ২৯শে কার্তিক ১৪২৬ | ১৩ নভেম্বর ২০১৯

দিল্লি এখন ‘গ্যাস চেম্বার’

শনিবার, নভেম্বর ২, ২০১৯

delhi.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

রাজধানীর বাতাসে ‘বিষ’। ‘গ্যাস চেম্বার’ দিল্লি।

ভারতের বহুল প্রচারিত বাংলা দৈনিক আনন্দবাজারের দুটি পৃথক সংবাদে গতকাল এভাবেই বর্ণনা করা হয়েছে দেশটির রাজধানী দিল্লির বায়ুদূষণের পরিস্থিতিকে। দিনের আলোতেও দিল্লি ধোঁয়ায় আচ্ছন্ন।

গত পাঁচ বছরের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ অবস্থা দেখা দিয়েছে দিল্লিতে। শুক্রবার সকালে বায়ুর মান ৪১২ একিউআই মাত্রায় নেমে এসেছে।

ভারতের দিল্লি শহরে বায়ুদূষণ এতটাই চরমে পৌঁছেছে যে মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল বলেছেন, গোটা দিল্লি যেন একটি গ্যাস চেম্বারে পরিণত হয়েছে। এ জন্য তিনি দিল্লিসংলগ্ন হরিয়ানা ও পাঞ্জাব রাজ্যের সরকারকে দায়ী করছেন।

এবার নয়াদিল্লির বায়ুদূষণ চরম আকার ধারণ করেছে। বাতাসের এমন ভয়ানক অবনতিতে জনস্বাস্থ্যে জরুরি অবস্থা জারি করেছে দিল্লি। এ জন্য ৫ নভেম্বর পর্যন্ত রাজধানীর সব স্কুল বন্ধ রাখাসহ আশেপাশের এলাকায় সবরকম নির্মাণকাজও বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

ইতিমধ্যে ‘একিউআই’ (এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স) দিল্লির আবহাওয়াকে ‘খুব খারাপ’ বলে চিহ্নিত করেছে। একিউআই’র মান অনুযায়ী, দিল্লির বাতাসে দূষণের মাত্রা ৩০১-৪০০; যা শ্বাসকষ্টের সঙ্গে শারীরিক অসুস্থতারও কারণ হতে পারে।

ভারতে সদ্য হয়ে যাওয়া দীপাবলি উৎসবে বাজি ফোটানোর কারণে বিষাক্ত গ্যাসে দিল্লি এবং নয়ডার গড় একিউআই বেড়ে ৩০৬ ও ৩৫৬ -তে দাঁড়িয়েছিল। শুক্রবার রাজধানীতে তা ৫০০ ছাড়িয়েছে।
জানুয়ারির পর এই প্রথম দিল্লিতে দম বন্ধ করা পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছে পরিবেশ দূষণ নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ। দূষণের পরিভাষায় একে বলা হচ্ছে ‘সিভিয়ার প্লাস’।

মারাত্মক বায়ুদূষণ মোকাবেলায় হিমশিম খাওয়া দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল এর আগে দূষণ থেকে রক্ষা পেতে সরকারি ও বেসরকারি স্কুলগুলোতে ৫০ লাখ মাস্ক বিতরণ শুরু করার কথা জানিয়েছেন। এবার দূষণের জেরে আগামী সপ্তাহ পর্যন্ত স্কুলই বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত জানাল সরকার।


ঢাকা, শনিবার, নভেম্বর ২, ২০১৯ (বিডিলাইভ২৪) // রি সু এই লেখাটি ১৪০ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন