সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ২৮শে অগ্রহায়ণ ১৪২৬ | ১২ ডিসেম্বর ২০১৯

ট্রেন দুর্ঘটনা: যাত্রীদের বেশিরভাগই ঘুমিয়েছিলেন

মঙ্গলবার, নভেম্বর ১২, ২০১৯

74871356_736505656841644_7140369828086284288_n.jpg
বিডিলাইভ রিপোর্ট :

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবার মন্দবাগ এলাকায় তুর্ণা নিশীথা ও উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষে ১৫ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অনেক যাত্রী। রাত তিনটায় দুই ট্রেনের সংঘর্ষের ঘটনার সময়ে বেশিরভাগ যাত্রী ঘুমিয়েছিলেন। হঠাৎ ট্রেনের সংঘর্ষের পর সকলের ঘুম ঘুম ভাব কেটে যায় এবং চিৎকার শুরু করেন। অনেকে ঘুমেই মধ্যেই চলে যান না ফেরার দেশে।

দুর্ঘটনার হাত থেকে প্রাণে বেঁচে যাওয়া শরিফুল নামে এক যাত্রী দুর্ঘটনার ভয়াবহতার কথা বর্ণনা করতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন। বেশি ক্ষতিগ্রস্ত উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেনটির যাত্রী ছিলেন তিনি।

শরিফুল জানান, ট্রেনের প্রায় সব যাত্রীই ঘুমিয়ে ছিলেন। হঠাৎ বিকট শব্দে ঘুম ভাঙে সবার। চোখ খুলেই দেখেন চারপাশে লণ্ডভণ্ড। ট্রেনের যাত্রীরা বাঁচাও বাঁচাও চিৎকার করছেন। অনেক জায়গায় হতাহতদের রক্তের ছাপ। যারা বেঁচে আছেন তাদের অনেকে জানালা দিয়ে লাফিয়ে বের হওয়ার চেষ্টা করছেন। আবার কেউ বের হতে না পেরে কান্নায় ভেঙে পড়ছেন। সে এক বীভৎস দৃশ্য।

শেষ রাতের ভয়াবহ এই ট্রেন দুর্ঘটনায় উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেনের পেছনের বেশ কয়েকটি বগি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তার মধ্যে তিনটি বগি প্রায় চূর্ণবিচূর্ণ হয়ে গেছে। হতাহতদের বেশিরভাগই উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেনের পেছনের তিনটি বগির যাত্রী ছিলেন। তাৎক্ষণিকভাবে হতাহতদের নামপরিচয় জানা যায়নি।

দুর্ঘটনার পর ফায়ার সার্ভিস, পুলিশ ও রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ স্থানীয়দের সহায়তায় উদ্ধার কাজে অংশ নেয়। এ ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করেছে জেলা প্রশাসন।

 


ঢাকা, মঙ্গলবার, নভেম্বর ১২, ২০১৯ (বিডিলাইভ২৪) // কে এইচ এই লেখাটি ১২৬২ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন