সর্বশেষ
মঙ্গলবার ২৬শে অগ্রহায়ণ ১৪২৬ | ১০ ডিসেম্বর ২০১৯

ক্লান্তি থেকে দ্রুত মুক্তি পাবার উপায়

বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪, ২০১৯

12.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

নগর জীবনে সারাক্ষণ ছুটতে থাকাটাই যেন নিয়তি। কাজের বাইরে যতটুকু সময়, সেটুকুও চলে যায় এটা-সেটা করতে করতেই। আর আছে রাজ্যের ক্লান্তি। যানবাহনে বসে-দাঁড়িয়ে অফিস ফেরত মানুষদের ঝিমানোর দৃশ্য তো নিত্যদিনের। অফিসে বসেই ক্লান্তিতে শরীর ভেঙে পড়তে চায় কখনো কখনো।

আবার কখনো অফিস কিংবা বাসায় ফেরার পর শরীরের মধ্যে ক্লান্তি একটা ভাব চলে আসে। ফলে শারীরিকভাবে খুবই দুর্বল লাগে অনেকের। আমরা এই দুর্বলতা থেকে নিজেতে মুক্তি দিতে অনেক কিছুই করি। কিন্তু ক্লান্তি যেন সরে না। তবে আপনি নিজেই এর সমাধান করতে পারেন।খুব সহজেই নিজের দুর্বলতাকে দূর করতে কিছু কৌশল মেনে চলতে পারেন।

ক্রনিক ফ্যাটিগ সিনড্রোম :
ক্রনিক ফ্যাটিগ সিনড্রোম বা ‘সিএফএস’ আরেকটি সাধারণ অসুস্থতা যা থেকে ক্লান্তি লাগতে পারে, দুর্বলতা ভর করতে পারে। এমন সমস্যায় আক্রান্তরা সারা রাত ঘুমালেও পরদিনও তাদের ক্লান্তি দূর হয় না। ঠিক কোন সমস্যা থেকে সিএফএস তৈরি হয় তা বলা মুশকিল। তবে, হরমোনের ভারসাম্যহীনতা, ভাইরাসের সংক্রমণ, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যাওয়া এমনকি প্রচণ্ড মানসিক চাপ বা উদ্বেগ থেকেও এটা হতে পারে। এই ক্ষেত্রে প্রত্যেক রোগীর অবস্থাভেদে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকেরা এ বিষয়ে পরামর্শ দিয়ে থাকেন। পাশাপাশি এই অবস্থা কাটিয়ে ওঠার জন্য অনেক থেরাপিও আছে।

ব্লাড সুগারের ওঠানামা:
ব্লাড সুগার বা রক্তে শর্করার পরিমাণ ওঠানামার কারণেও এমন শারীরিক ক্লান্তি তৈরি হতে পারে। ডায়াবেটিসের অনেক উপসর্গের মধ্যে প্রায়ই শরীর দুর্বল হয়ে যাওয়া, ক্লান্তিতে নেতিয়ে পড়া অবস্থাও একটি। এমন হয়ে থাকলে সাধারণ রক্ত পরীক্ষা থেকেই আপনি ডায়াবেটিস শনাক্ত করতে পারবেন। ডায়াবেটিস ধরা পড়লে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে চলতে শুরু করুন।

হতাশা ও বিষণ্নতায় ভোগা :
কোনো কিছু নিয়ে গভীর হতাশায় ডুবে আছেন? অতিরিক্ত মানসিক চাপ থেকে লাগাতার বিষণ্নতায় ভুগছেন? তাহলেও কিন্তু এমন দুর্বলতা আর ক্লান্তি ভর করতে পারে। এমন হলে আপনি একজন মনোরোগ বিশেষজ্ঞের কাছে যান। নিজের সমস্যার কথা খুলে বলে তার পরামর্শ নিন। অল্প দিনেই আপনি হয়তো আবার নিজেকে ফিরে পেতে শুরু করবেন।

পুষ্টিকর খাবার:
তাৎক্ষণিকভাবে এর সমাধান হচ্ছে ভাত, স্যালমন মাছ, দুধ, ডার্ক চকলেট ও কলা খাওয়া। বিজ্ঞান এটা প্রমাণ করেছে যে, এই খাদ্য শারীরিকভাবে আপনাকে শক্তি যোগাবে ও দুর্বলতা কাটিয়ে দেবে।

পর্যাপ্ত ঘুম:
আপনি কোন পজিশনে ঘুমাতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন কখনও ভেবেছেন? এ বিষয়টি আপনি খেয়াল রাখবেন এবং ওই পজিশনে ঘুমানোর চেষ্টা করুন। তাহলে গড় সময়ের থেকে অনেক আগেই আপনি ঘুমাতে পারবেন।

ওজন কমান:
ধীরে ধীরে ওজন কমানোর সহজ উপায় জানতে চান? নিয়মিত তাজা ও পুষ্টিকর খাদ্য খাবেন। তাহলে এটি ধীরে ধীরে আপনার ওজন কমাবে এবং শারীরিক পীড়া থেকে মুক্তি দেবে।

 


ঢাকা, বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪, ২০১৯ (বিডিলাইভ২৪) // জে এস এই লেখাটি ৩৫২ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন