সর্বশেষ
শুক্রবার ২৯শে অগ্রহায়ণ ১৪২৬ | ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯

পেঁয়াজের বিকল্প চিভ

চাষে সফল বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইন্সটিটিউট (বারি)

শনিবার, নভেম্বর ১৬, ২০১৯

news_207053_2.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

পেঁয়াজের ঝাঁজে কাঁদছে বাংলাদেশ। রান্নার অন্যতম এ উপকরণের উচ্চমূল্যে দিশেহারা সাধারণ মানুষ।এক সময়ের ৩০ টাকা কেজির পেঁয়াজ এখন বিক্রি হচ্ছে ২৫০ টাকায়। 

এমনই সময় পেঁয়াজের বিকল্প ‘চিভ’ নামে একটি মসলা চাষে সফলতার সংবাদ দিয়েছেন দেশের বাংলাদেশের কৃষি বিজ্ঞানীরা।

উত্তর চীন, সাইবেরিয়া ও মঙ্গোলিয়া অঞ্চলের বহুবর্ষজীবী এ উদ্ভিদটির একটি উচ্চ ফলনশীল জাত সফলভাবে চাষ করে দেখিয়েছেন বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইন্সটিটিউটের (বারি) মসলা গবেষণা কেন্দ্রের কয়েক বিজ্ঞানী। তারা বলছেন, এ চিভ দিয়েই পেঁয়াজের ঘাটতি পূরণ সম্ভব। তাদের ভাষ্য চিভ সারা বছর চাষ করা যায়। একবার রোপন করলে সারা বছর ফল যাওয়া যায়। 

দীর্ঘদিন চিভ নিয়ে গবেষণা করছেন আঞ্চলিক মসলা গবেষণা কেন্দ্রের ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. নুর আলম চৌধুরী। তিনি জানান, পৃথিবীর অনেক দেশে চিভ স্যুপ, সালাদ ও চাইনিজ ডিশে ব্যবহূত হয়। এর পাতা লিলিয়ান আকৃতির ফ্ল্যাট, পাতার কিনারা মসৃণ ও এর বাল্ব লম্বা আকৃতির। এর ফুল সাদা-বেগুনি বর্ণের। চিভের স্বাদ অনেকটা আমাদের দেশীয় পেঁয়াজ ও রসুনের মতো।

ড. আলম বলেন, চারা লাগানোর ৬৫-৭০ দিনের মধ্যে ফসল সংগ্রহ শুরু হয়। এর পাতা, কাণ্ড ও কাঁচা ফুল মশলা হিসেবে ব্যবহৃত হয়। একবার পাতা-কাণ্ড কেটে নিলে আবার গজায়। বাড়ির আঙিনায় বা টবেও চাষ করা যায়।

“বগুড়াসহ কয়েকটি এলাকায় কৃষকদের মাধ্যমে এর চাষ সম্প্রসারণ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। চাষি ও ভোক্তাদের মধ্যে এর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে।”

বাংলাদেশে বছরে ১৭ লাখ মেট্রিকটনের বেশি পেঁয়াজ উৎপাদিত হয় জানিয়ে তিনি বলেন, আরও প্রায় পাঁচ লাখ মেট্রিটনের বেশি ঘাটতি রয়েছে।
“চিভ সেই ঘাটতি মেটাতে সহায়ক ভূমিকা রাখতে পারে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এটি একটি জনপ্রিয় মশলা।”

চিভের গুণাগুণ সম্পর্কে ড. আলম বলেন, এটা হজমে সাহায্য করে, রোগ নিয়ন্ত্রণ করে। এছাড়া এতে ক্যান্সার প্রতিরোধী গুণাগুণ রয়েছে। আছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি, ভিটামিন বি-১, ভিটামিন বি-২, নায়াসিন, ক্যারোটিন ও খনিজ উপাদান।

 

 


ঢাকা, শনিবার, নভেম্বর ১৬, ২০১৯ (বিডিলাইভ২৪) // রি সু এই লেখাটি ৫৭১ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন