সর্বশেষ
বুধবার ৩১শে আষাঢ় ১৪২৭ | ১৫ জুলাই ২০২০

বাবাকে ভিডিও কল দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের আত্মহত্যা

শুক্রবার, ডিসেম্বর ২০, ২০১৯

image-1912200449.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

বাবাকে ভিডিও কল দিয়ে হোস্টেলের নয় তলা থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্র। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ওই ছাত্রের নাম সুজন সামন্ত। ১৯ বছরের সুজন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে কম্পিউটার সায়েন্সের প্রথম বর্ষের ছাত্র। প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, সুজন বেশ কয়েক মাস ধরে মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন।

জানা যায়, আসানসোলের বাসিন্দা সুজন গরফার প্রতাপগড়ে একটি বাড়িতে ভাড়া থাকতেন। সেখান থেকেই বিশ্ববিদ্যালয়ে যাতায়াত করতেন। এ দিন সন্ধ্যা পৌনে সাতটা নাগাদ হঠাৎই ভারী কিছু পড়ার আওয়াজ পান কয়েক জন ছাত্রছাত্রী। তাঁরাই প্রথম দেখতে পান হোস্টেলের এক দিকে মাটিতে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে ওই ছাত্র।

বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে খবর পেয়ে সুজনকে যাদবপুর থানার পুলিশ এমআর বাঙুর হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। তদন্তে নেমে পুলিশ প্রথমেই আসানসোলে তাঁর পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করে। তখনই তাঁর বাবা পুলিশকে জানান, মানসিক অবসাদে ভুগছিল সুজন। এ দিন সন্ধ্যায় বাবাকে ভিডিও কল করে কয়েক মিনিট কথাও বলেন সুজন। তখনই বাবাকে আত্মহত্যা করার কথা বলেন।

পুলিশ সূত্রে আরও জানা যায়, ওই কথোপকথনের সময়েই সুজনের বাবা আঁচ করেছিলেন যে, ছেলে মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন। কিন্তু ফোন রেখেই যে সে সুজন ও রকম কিছু করবেন, তা ভাবতে পারেননি তিনি। এর আগেও দু’বার সুজন আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন বলে জানতে পেরেছে পুলিশ।

তবে সুজন কেন মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন তা এখনও স্পষ্ট নয়। সুজন উচ্চমাধ্যমিকে ভাল ফল করে যাদবপুরে ভর্তি হন। তিনি পড়াশোনা সংক্রান্ত কোনও বিষয় নিয়ে অবসাদে ভুগছিলেন কি না তাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।


ঢাকা, শুক্রবার, ডিসেম্বর ২০, ২০১৯ (বিডিলাইভ২৪) // রি সু এই লেখাটি ৭৯৯ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন