সর্বশেষ
শনিবার ১১ই আশ্বিন ১৪২৭ | ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০

আদায় দূর করে ৬ রোগ

শুক্রবার, জানুয়ারী ১৭, ২০২০

ginger.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

চলছে শীতকাল। এ সময়ে খুবই সাধারণ দৃশ্য ঠাণ্ডাজনিত সমস্যা। শীতে সর্দি-কাশির প্রকোপ বাড়ে। ঘনঘন ডাক্তারের শরণাপন্ন হয়েও প্রতিরোধ করা যায় না। তবে হাতের নাগালেই রয়েছে এক প্রাকৃতিক উপাদান, যা খেলে এর প্রকোপ থেকে মুক্ত থাকা যায়। এটি কমবেশি আমাদের সবার রান্নাঘরে থাকে। চিন্তায় পড়ে গেলেন? ভাবছেন- এটি আবার কী, সেটি হচ্ছে আদা।

১. গলা ব্যথা দূর করে:

আদা একটি মসলাজাতীয় পণ্য। এটি চিবিয়ে খেলে ঠাণ্ডাজনিত যে কোনো সমস্যা থেকে মুক্ত থাকা যায়। এতে রয়েছে অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদান, যা ঠাণ্ডার কারণে গলাব্যথা উপশমে কার্যকরী ভূমিকা রাখে।

২. হজমের সমস্যা রোধে:

রক্তের অনুচক্রিকা এবং হৃদযন্ত্রের কার্যক্রম ঠিক রাখতে আদা দারুণ কার্যকর। মুখের রুচি বাড়াতে ও বদহজম রোধে আদা শুকিয়ে খেলে বাড়বে হজম শক্তি। আদার মধ্যে ডাইজেসটিভ ট্রাক্টের প্রদাহ কমানোর ক্ষমতা রয়েছে। এটি পাচক রস নিঃসরণ করতে সাহায্য করে।

৩. বমি রোধে:

অনেক সময় আমাদের দেহে অস্থিরতা কাজ করে, তখন কোন কিছু খেতে ইচ্ছা করে না। বমি বমিভাব বা বমি হয়ে যায়। এমন সময় আপনি যদি আদা কুচি করে চিবিয়ে খান অথবা আদার রসের সাথে সামান্য লবণ মিশিয়ে পান করেন। তাহলে তাৎক্ষণিক সমাধান পেয়ে যাবেন।

৪. ক্ষতস্থান পূরণ করতে:

দেহের কোথাও ক্ষতস্থান থাকলে তা দ্রুত শুকাতে সাহায্য করে আদা। এতে রয়েছে অ্যান্টিইনফ্ল্যামেটরি এজেন্ট, যা যেকোনো কাটাছেঁড়া, ক্ষতস্থান দ্রুত ভালো করে। পেশি ব্যথায় আদা কার্যকর।

৫. হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়:

আদার রস শরীর শীতল করে এবং হার্টের জন্য উপকারী। প্রতিদিন মাত্র ২ গ্রাম আদার গুঁড়ো ১২ সপ্তাহ ধরে খেলে ডায়াবেটিসের ঝুঁকি ১০ ভাগ কমে। পাশাপাশি হৃদরোগের ঝুঁকিও কমে ১০ ভাগ।

৬. পেটের রোগ নিরাময়ে:

আমাশয়, জন্ডিস, পেট ফাঁপা রোধে আদা চিবিয়ে বা রস করে খেলে উপকার পাওয়া যায়।


ঢাকা, শুক্রবার, জানুয়ারী ১৭, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // এ এম এই লেখাটি ৫৯৫ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন