সর্বশেষ
মঙ্গলবার ২৪শে চৈত্র ১৪২৬ | ০৭ এপ্রিল ২০২০

অ্যান্টার্কটিকায় ৬৫ ডিগ্রি ফারেনহাইট তাপমাত্রার রেকর্ড

শনিবার, ফেব্রুয়ারী ৮, ২০২০

6.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

ইতিহাসের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে অ্যান্টার্কটিকায়। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার মহাদেশের উত্তরাঞ্চলের একটি প্রত্যন্ত স্টেশনে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা পরিমাপ করা হয়েছে।

অ্যান্টার্কটিকায় আর্জেন্টিনার এসপেরাঞ্জে গবেষণা কেন্দ্রের বিজ্ঞানীরা এই তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে। এদিন রেকর্ড করা তাপমাত্রা ছিল ৬৫ ডিগ্রি ফারেনহাইট (১৮.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস)। খবর সিএনএনের।

এর আগে অ্যান্টার্কটিকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা হিসেবে ২০১৫ সালের মার্চে এই স্থানে ৬৩.৫ ডিগ্রি ফারেনহাইট (১৭.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস) রেকর্ড করা হয়েছিল। এসপারেঞ্জায় ১৯৬১ সাল থেকে তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। এই তাপমাত্রা অ্যান্টার্কটিকার জন্য ভয়ঙ্কর হিসেবে দেখছেন বিজ্ঞানীরা।

তবে আর্জেন্টিনার গবেষণা কেন্দ্রের রেকর্ডকৃত তাপমাত্রা যাচাই করেনি বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থা (ডব্লিউএমও)। সংস্থাটি জানিয়েছে, সেখানকার তাপমাত্রা সঠিকভাবে পরিমাপ করার জন্য একটি দল পাঠানো হবে। তবে বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থা জানিয়েছে, আমরা যা দেখেছি সম্প্রতি রেকর্ডকৃত তাপমাত্রা তার দিকেই ইঙ্গিত করে।

জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে অ্যান্টার্কটিকা দ্রুত উত্তপ্ত হয়ে উঠছে। এর পরিণতি খুব দ্রুত বিশ্ববাসীকে ভোগ করতে হবে। বরফ গলে সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধি পাবে এবং অনেক উপকূলীয় এলাকা পানির নিচে চলে যাবে।

বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুত উষ্ণতম স্থানের মধ্যে অন্যতম অ্যান্টার্কটিকা। বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থা জানিয়েছে, গত ৫০ বছরে সেখানকার তাপমাত্রা ৫.৪ ডিগ্রি ফারেনহাইট (৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস) বেড়েছে। গবেষণায় দেখা গেছে, অ্যান্টার্কটিকার অনেক বড় হিমবাহ জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে দ্রুত গলে যাচ্ছে।

সাম্প্রতিক এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, আবহাওয়ার পরিবর্তনের কারণে পশ্চিম অ্যান্টার্কটিকার বিশাল হিমবাহ গলে যাচ্ছে। এই একটি হিমবাহ বিশ্বব্যাপী সমুদ্রে স্তর দশ ফুট বাড়িয়ে দেয়ার ক্ষমতা রাখে।


ঢাকা, শনিবার, ফেব্রুয়ারী ৮, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // কে এইচ এই লেখাটি ২৭০ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন