সর্বশেষ
বুধবার ২০শে জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ | ০৩ জুন ২০২০

পাকিস্তান যেতে রাজি হলেন মুশফিক

মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী ২৫, ২০২০

musfiq-1.jpg
বিডিলাইভ রিপোর্ট :

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্টে দ্বি-শতক পূর্ণ করায় ম্যাচ সেরার পুরষ্কার অবধারিতভাবেই মুশফিকের হাতে উঠেছে। ম্যাচসেরার পুরস্কার পাওয়ার পর ভক্তদের বড় এক সু-সংবাদ দিলেন মুশফিক। সিরিজের বাকি ম্যাচগুলো খেলতে পাকিস্তানে যাচ্ছেন তিনি।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টে জয়ের পর হাসিমুখেই সংবাদ সম্মেলনে আসলেন মুশফিকুর রহিম। সাংবাদিকদের নানা প্রশ্নের উত্তরও দিলেন খুব হাসিমাখা মুখেই। যদিও মুশফিকুর রহিমকে এতটা খুশিতে খুব একটা দেখা যায়না। পাকিস্তান সফরেও শেরে বাংলার মতোই ব্যাটিং ছন্দ ধরে রাখতে চান কিনা? এমন প্রশ্নে তখন বিষয়টি এড়িয়ে গেলেও সংবাদ সম্মেলন শেষে তিনি জানালেন করাচি টেস্টে খেলতে পাকিস্তান সফরে যাচ্ছেন তিনি।

পারিবারিক কারণে টি-টোয়েন্টি সিরিজ ও প্রথম টেস্ট খেলতে পাকিস্তানে যাননি মুশফিক। বিসিবিও পাকিস্তান সফরের ব্যাপারে ক্রিকেটারদের সিদ্ধান্ত নেওয়ার স্বাধীনতা দিয়ে রেখেছিল। সেই মতো মুশফিক নিজের সিদ্ধান্ত নিলেও বোর্ড ভালোভাবে নেয়নি। যদিও দু'বারই নিরাপদে পাকিস্তান সফর করে দেশে ফিরেছে বাংলাদেশ দল। পাকিস্তান সফর শেষে নিরাপদে দেশে ফিরলেও পাকিস্তানের বিপক্ষে বাজেভাবে হেরে নানা সমালোচনার জন্ম দিয়েছে টাইগার বাহিনী।

শুনা যাচ্ছে, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজে নাম রাখার আগেই বিসিবির দুই নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু ও হাবিবুল বাশার দেয়া শর্ত মোতাবেক পাকিস্তানে যেতে রাজি হওয়াতেই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজে নাম রাখা হয় মুশফিকুর রহিমের। তবে যেভাবেই হোক, আগামী এপ্রিলে পাকিস্তানের বিপক্ষে একটি ওয়ানডে ও একটি টেস্ট খেলতে দেশটিতে যাবে বাংলাদেশ।

করাচি টেস্টে পূর্ণ শক্তির দল নিয়ে খেলতে পারবে বাংলাদেশ। অধিনায়ক মুমিনুল হকও সহযোগিতা পাবেন সিনিয়রের কাছ থেকে। এ ব্যাপারে মুশফিক বললেন, 'আল্লাহ ভরসা, চেষ্টা করব ছন্দটা ধরে রেখে পাকিস্তানে খেলতে। দলের ভেতরে আত্মবিশ্বাস ফিরেছে। আশা করি ভালো ক্রিকেট খেলতে পারব ওখানে।'


ঢাকা, মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী ২৫, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // এ এম এই লেখাটি ৭৯১ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন