সর্বশেষ
সোমবার ২৩শে চৈত্র ১৪২৬ | ০৬ এপ্রিল ২০২০

বিদ্যুতের দাম পুনর্নির্ধারণ: ঘোষণা আসছে বিকেলে

বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী ২৭, ২০২০

1575216896_elecity.jpg
বিডিলাইভ রিপোর্ট :

গত বছরের জুনের শেষে গ্যাসের দাম বাড়ানোর দুই মাসের মাথায় বিদ্যুতের দাম আরেক দফা বাড়ানোর জন্য বিইআরসিতে প্রস্তাব পাঠাতে শুরু করে বিতরণ কোম্পানিগুলো। এসব প্রস্তাবের ওপর গত ২৮ নভেম্বর শুরু হয় গণশুনানি। সেই গণশুনানির সিদ্ধান্ত জানাতে সংবাদ সম্মেলন ডেকেছে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন- বিইআরসি।

বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টায় কারওয়ানবাজারে কমিশন কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলন হবে বলে বিইআরসির ট্যারিফ শাখার এক কর্মকর্তা জানান। সর্বশেষ ২০১৭ সালের নভেম্বরে পাইকারি বিদ্যুতের দাম গড়ে ৩৫ পয়সা বা ৫ দশমিক ৩ শতাংশ বাড়ায় সরকার, যা ডিসেম্বর থেকে কার্যকর হয়।

তাতে আবাসিকে মাসে ৭৫ ইউনিট পর্যন্ত বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীদের খরচ বাড়ে ১৫ টাকা, ১৫০ ইউনিটে ৪৮ টাকা, ২৫০ ইউনিট পর্যন্ত ৯০ টাকা, ৪৫০ ইউনিট পর্যন্ত ১৯৬ টাকা এবং ১০০০ ইউনিট পর্যন্ত ব্যবহারকারীদের খরচ বাড়ে ৬০৪ টাকা। এতে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিপিডিবি) পাইকারিতে ইউনিট প্রতি বিদ্যুতের দাম ২৩ দশমিক ২৭ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব দেয়।

তাছাড়া বিতরণকারী বা খুচরা বিক্রেতা কোম্পানিগুলোর মধ্যে ডেসকো, ডিপিডিসি, ওজোপাডিকো ও নেসকো দাম বাড়ানোর আবেদন করে । যুক্তি হিসেবে পরিচালন ও জনবল বাবদ ব্যয় বৃদ্ধি এবং আধুনিক প্রযুক্তি স্থাপন ও সরঞ্জামের মূল্য বৃদ্ধির কথা বলা হয় কোম্পানিগুলোর পক্ষ থেকে। তবে পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের (বিআরইবি) পক্ষ থেকে বলা হয়, পাইকারিতে দাম না বাড়লে তাদের দাম বাড়ানোর প্রয়োজন হবে না। নিয়ম অনুযায়ী গণশুনানির ৯০ দিনের মধ্যেই সিদ্ধান্ত জানাতে হয় বিইআরসিকে। ৯০ দিন পূর্ণ হওয়া এক সপ্তাহ আগেই আসছে সেই ঘোষণা।


ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী ২৭, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // এ এম এই লেখাটি ৩২৯ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন