সর্বশেষ
মঙ্গলবার ২৪শে চৈত্র ১৪২৬ | ০৭ এপ্রিল ২০২০

চবিতে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ, আহত প্রায় অর্ধশত

বৃহস্পতিবার, মার্চ ৫, ২০২০

8.jpg
বিডিলাইভ রিপোর্ট :

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) মধ্যরাতে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে শাখা ছাত্রলীগের প্রায় অর্ধশাত নেতা-কর্মী আহত হয়েছে বলে জানা যায়। ভাঙচুর করা হয়েছে হলের বেশি কিছু কক্ষ। ৭ জনকে আটক করেছে পুলিশ।এর আগে বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে ৩টার দিকে এফ রহমান হল থেকে ৫৭ ছাত্রলীগ কর্মীকে আটক করা হয়। আটকদের হাটহাজারী থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। পরবর্তীতে যাচাই-বাছাই করে ৫০ জনকে ছেড়ে দেয়া হয়।

আটকরা হলেন, ‘সিক্সটি নাইন’ গ্রুপের রসায়ন বিভাগের ১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের গোলাম শাহরিয়ার, ইসলামের ইতিহাস বিভাগের ১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের জোবায়ের আহমেদ নাদিম, উদ্ভিদবিদ্যা বিভাগের একই শিক্ষাবর্ষের মাশরুর অনিক, পরিসংখ্যান বিভাগের ১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের আকিব জাবেদ, ১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের রুম্মান ও হায়দার। এছাড়া বিজয় গ্রুপের ১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের জিন্নাত মজুমদার ও কনকর্ড গ্রুপের জিসান।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, বুধবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে পূর্বের ঘটনার রেশ ধরে মধ্যরাতে এফ রহমান হলে বিজয় গ্রুপের ওপর আক্রমণ করে নাছিরের অনুসারী সব গ্রুপ। এ সময় হলে ব্যাপক ভাঙচুর চালানো হয়। বৈদ্যুতিক বাতি ভেঙে ফেলা হয়। ককটেল বিস্ফোরিত হয়। এ সময় দুই গ্রুপের মধ্যে তুমুল সংঘর্ষ হয়। এতে উভয় গ্রুপের প্রায় অর্ধশত কর্মী আহত হন। পরবর্তীতে বিজয় গ্রুপকে হটিয়ে এফ রহমান হল দখলে নেয় নাছির গ্রুপ।

সংঘর্ষের বিষয়ে প্রক্টর এস এম মনিরুল হাসান বলেন, হিংসার রাজনীতির কারণে বারবার সংঘর্ষে জড়াচ্ছে ছাত্রলীগ। গতরাতে সিটি মেয়রের অনুসারীরা তিন হলে হামলা চালিয়েছেন। আর উপাচার্যের সঙ্গে কথা বলে আটকৃতদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।বর্তমানে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের দুটি পক্ষ আছে। একটি মেয়র নাছিরের ও অন্যটি শিক্ষা উপমন্ত্রীর অনুসারী বলে পরিচিত। এই দুই পক্ষের মধ্যে আরও ১১টি উপপক্ষ আছে।


ঢাকা, বৃহস্পতিবার, মার্চ ৫, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // কে এইচ এই লেখাটি ৩৩৭ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন