সর্বশেষ
রবিবার ২২শে চৈত্র ১৪২৬ | ০৫ এপ্রিল ২০২০

কিছু দেশ ক্রয় আদেশ বাতিল করতে চাচ্ছে : বাণিজ্যমন্ত্রী

রবিবার, মার্চ ১৫, ২০২০

Tipu-munshi.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি জানিয়েছেন বেশ কিছু দেশ করনোভাইরাসের কারণে বাংলাদেশ থেকে তাদের ক্রয় আদেশ প্রত্যাহার চাচ্ছে। তারা ক্রয় আদেশ প্রত্যাহার করে অন্য দেশে দেওয়ার চিন্তা করছে। এর ফলে দেশের রপ্তানি বাণিজ্যে নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে।রোববার (১৫ মার্চ) বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ‘বিশ্বভোক্তা অধিকার দিবস-২০২০’ উপলক্ষে আলোচনা সভা ও হট লাইন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বাণিজ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন।

বাণিজ্যে করোনাভাইরাসের প্রভাব কতটা পড়তে পারে জানতে চাইলে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, আন্তর্জাতিক বাণিজ্যে করোনাভাইরাস ব্যাপক প্রভাব ফেলেছে। বিশেষ করে বাংলাদেশের রপ্তানি পণ্যের বড় একটি অংশ ইউরোপে যাচ্ছে। পুরো ইউরোপ জুড়ে ভাইরাসটি ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। এর ফলে ইউরোপের বিভিন্ন দেশ পণ‌্য আমদানিতে নতুন করে চিন্তা ভাবনা করছে।

টিপু মুনশি বলেন, বড় সমস্যা হচ্ছে কিছু কিছু দেশ তাদের ক্রয় আদেশ বাতিল করতে চাচ্ছে। তারা অন্য দেশ থেকে পণ‌্য আমদানির চিন্তা ভাবনা করছে। এমন হলে আমাদের কিছুটা সমস্যা হবে। সারা বিশ্বে যোগাযোগ বন্ধ। আকাশ পথে যোগাযোগ প্রায় স্থবির হয়ে পড়েছে। বিশ্বজুড়ে করোনভাইরাসের যে ধাক্কা লেগেছে তার প্রভাব আমাদের অর্থনীতিতেও পড়বে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ইতালি কিছু ক্রয় আদেশ বাতিল করতে চেয়েছে। সঠিক সময়ে পণ্য না পাওয়ার কারণে প্রধান ক্রেতারা ক্রয় আদেশ বাতিল করতে চাচ্ছে অথবা বিমানে পাঠাতে বলছে। সেখানে সমস্যা রয়েছে। তাছাড়া, যে সমস্ত দেশ নেবে তাদেরও করোনার ভয় আছে।

তিনি বলেন, আমাদের শিল্পে ব্যবহৃত কাঁচামালের ৬০ শতাংশ আসে চীন থেকে। সেখানে কিছু শ্লথ গতি দেখছি। তবে সুখের বিষয় হচ্ছে চীন আবার উৎপাদন শুরু করেছে। তবে ইতিমধ্যে এর কিছুটা প্রভাব আমাদের ওপর পড়েছে। সেটা কীভাবে পূরণ করা যায় সেটা চেষ্টা করা হচ্ছে।

বানিজ্যমন্ত্রী বলেন, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি থেকে চীন বাংলাদেশে পণ্য রপ্তানি শুরু করেছে। আমাদের কিছু ক্ষতি হলেও সেগুলো পুষিয়ে উঠতে পারব।


ঢাকা, রবিবার, মার্চ ১৫, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // পি ডি এই লেখাটি ৪৭৩ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন