সর্বশেষ
শুক্রবার ২৩শে শ্রাবণ ১৪২৭ | ০৭ আগস্ট ২০২০

দেহে ভিটামিন 'এ'র প্রয়োজনীয়তা

বুধবার, মার্চ ১৮, ২০২০

100.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

মানব দেহের জন্য অন্যান্য নিউট্রিয়েন্ট এর পাশাপাশি ভিটামিন 'এ' এর চাহিদাও অনেক। এজন্য প্রতিদিনের চাহিদা অনুযায়ী শরীরের জন্য যতটুকু পরিমান ভিটামিন 'এ' এর চাহিদা রয়েছে সেই চাহিদা পূ্রণ করা উচিত। কারণ শরীরে ভিটামিন 'এ' এর অভাবে হতে পারে নানা ধরনের জটিলতা।

ভিটামিন 'এ' হল খাবারের মধ্যে থাকা জৈব অনু। ভিটামিন 'এ' একটি স্নেহ দ্রাব্য বা পদার্থ।একটি হালকা হলুদ বর্ণের প্রাথমিক স্নেহ পদার্থ হল ভিটামিন 'এ'। ভিটামিন ‘এ’ র রাসায়নিক নাম ‘রেটিনাল’। মানবদেহে ভিটামিন ‘এ’ জারিত হয়ে রেটিনোয়িক অ্যাসিড তৈরি করে।

ভিটামিন 'এ'র পরিমাণ:
শরীরে ভিটামিন 'এ' প্রয়োজন অনুযায়ী থাকা দরকার। একজন পূর্ণবয়স্ক মহিলার শরীরে ভিটামিন 'এ' দিনে কম করে ৭০০ মাইক্রোগ্রাম থাকা উচিত। পূর্ণবয়স্ক পুরুষদের শরীরে দিনে কম করে ৯০০ মাইক্রোগ্রাম ভিটামিন 'এ' থাকা দরকার। মহিলাদের খাবারে ঊর্ধ্বসীমা দৈনিক সর্বাধিক ৩০০০ মাইক্রোগ্রাম ও পুরুষদেরও ৩০০০ মাইক্রোগ্রাম ভিটামিন 'এ' থাকা দরকার।

ভিটামিন 'এ'র কাজ:
ভিটামিন 'এ' শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। ভিটামিন 'এ' চোখের জন্য খুবই প্রয়োজনীয়। শরীরের বিকাশে ভিটামিন 'এ' র ভূমিকা আছে। বাহ্যিক আবরণের কোষ, ত্বক, দাঁত, ও অস্থির গঠনের জন্য ভিটামিন 'এ' জরুরী। ভিটামিন 'এ' নানা রকমের সংক্রামক রোগ থেকে শরীরকে রক্ষা করে থাকে। শরীরে প্রাপ্ত লৌহের স্বাভাবিক ব্যবহারের ঘাটতি হয় না ভিটামিন 'এ' শরীরে থাকলে। ফলে রক্ত স্বল্পতা দেখা দেয়না। শরীর সুস্থ্য থাকে।ভিটামিন 'এ' বার্ধক্য রোধ করতে সহায়ক। ত্বকের শুষ্কতা বা বলিরেখা ভিটামিন 'এ' র দ্বারা থাকে না। ত্বক সতেজ রাখে। টিউমার ও ক্যান্সার থেকে রক্ষা করে ভিটামিন 'এ'। লিভার ভালো রাখে।

ভিটামিন 'এ' র অভাবজনিত রোগ:
# ভিটামিন 'এ' শরীরে কম থাকলে যে রোগটি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে সেটি হল ‘রাতকানা রোগ’। ভিটামিন 'এ'র অভাবে এই রোগ সাধারণত হয়ে থাকে। রাতকানা রোগ হলে রোগী দিনের বেলায় আলোতে স্বাভাবিক চলাফেরা করে। কিন্তু রাতের বেলায় দেখতে অসুবিধে হয়। অনেকে রাতকানা রোগের জন্য রাতে একেবারে দেখতে পায়না। আবার অনেকে ভুল দেখে।

# ভিটামিন 'এ' শরীরে কম থাকলে শরীরে প্রাপ্ত লৌহের স্বাভাবিক ব্যবহারে ঘাটতি ঘটে। ফলে রক্ত স্বল্পতা দেখা দেয়। যার থেকে অ্যানিমিয়া হবার সম্ভাবনা থেকে যায়।

# ভিটামিন 'এ' র অভাব হলে ত্বক শুষ্ক হয়ে যায়। কম বয়সে মুখে বলিরেখা দেখা দেয়। বার্ধক্য জনিত সমস্যা তৈরি হয়।

# গবেষণা থেকে জানা গিয়েছে যে ২১% মানুষের শরীরে টিউমার বা স্কিন ক্যান্সার হয় ভিটামিন 'এ' র অভাবে। মূলত এইডস ও স্তন ক্যান্সার হয়। তাছাড়া নিশ্বাসের সমস্যা, ভ্রুনের সমস্যা, চুল পরার সমস্যা হয়ে থাকে ভিটামিন 'এ' এর অভাবে।

অন্যদিকে, প্রয়োজনের অতিরিক্ত ভিটামিন 'এ' গ্রহণ করা উচিত নয়। অতিরিক্ত ভিটামিন 'এ' শরীরের বিকাশে খারাপ প্রভাব ফেলে। মাংসপেশি শিথিল হয়ে যায়। লোহিত রক্ত কনিকা উৎপাদনে ব্যঘাত ঘটে। মাসিক রজঃস্রাব বন্ধ হয়ে যায়। লিভারের সমস্যা দেখা দেয়। ত্বক খসখসে হয়ে যায়।

মানব দেহে ভিটামিন 'এ'র প্রয়োজন আছে। তবে তা শরীরের দরকারের মাত্রা অনুযায়ী। শিশু, মহিলা, পুরুষ সকলের শরীরের প্রয়োজন অনুযায়ী ভিটামিন 'এ'র যোগান থাকা উচিত।


ঢাকা, বুধবার, মার্চ ১৮, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // এস আর এই লেখাটি ২০৩ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন