সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ২৫শে আষাঢ় ১৪২৭ | ০৯ জুলাই ২০২০

এক বছর পিছিয়ে যেতে পারে টোকিও অলিম্পিক

সোমবার, মার্চ ২৩, ২০২০

6_0.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের জেরে ২০২০ সালের টোকিও অলিম্পিক নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। এটি এক বছর পিছিয়ে আগামী বছর অনুষ্ঠিত হতে পারে। ২০২১ সালে অলিম্পিক হওয়ার বিষয়ে সোমবার এমন ইঙ্গিত দিয়েছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে৷ ২০২০ সালে অলিম্পিক হলে তাতে অংশ গ্রহণ করবে না বলে আগেই জানিয়ে দিয়েছিল কানাডা ও অস্ট্রেলিয়া৷

করোনার কারণে অবশেষে অলিম্পিক স্থগিত রাখাটা ‘অনিবার্য’ মনে করছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে। অলিম্পিকে অংশগ্রহণ করতে চলা বিভিন্ন দেশের বিভিন্ন স্পোর্টস গভর্নিং বডি এবং অ্যাথলিটদের ক্রমাগত চাপের মুখে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি গেমস স্থগিত রাখার বিষয়ে অনেকটাই সম্মতি দিয়েছে। এবার সেই সুরে সুর মিলিয়ে আবে জানালেন, বিশ্বজুড়ে এমন মহামারীর পরিস্থিতিতে অলিম্পিক স্থগিত রাখাটাই হয়তো অবশ্যম্ভাবী হবে।কানাডা ইতিমধ্যেই জানিয়ে দিয়েছে যথাসময়ে অর্থাৎ ২৪ জুলাই অলিম্পিক শুরু হলে তারা তাদের দল পাঠাবে না। প্যারালিম্পিক থেকেও নাম প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। অস্ট্রেলিয়ার অলিম্পিক কমিটি তাদের অ্যাথলিটদের ২০২১’র প্রস্তুতি গ্রহণ করতে বলছে। এভাবে বিভিন্ন দেশের স্পোর্টস গভর্নিং বডি কিংবা অলিম্পিক গভর্নিং বডি যখন পিছিয়ে যাচ্ছে, তখন যথাসময়ে অলিম্পিক আয়োজনের অবস্থান থেকে ধীরে ধীরে পিছিয়ে আসতে বাধ্য হচ্ছে আইওসি ও আয়োজক দেশ।অস্ট্রেলিয়ার অলিম্পিক কমিটির প্রধান ইয়ান চেস্টারম্যান পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে আগেই জানিয়েছিলেন, এটা পরিষ্কার যে অলিম্পিক জুলাইতে হওয়া কোনোমতেই সম্ভব নয়। সোমবার পার্লামেন্টে জাপানের প্রধানমন্ত্রী জানালেন, ‘জাপান এখনও পরিপূর্ণ অলিম্পিক আয়োজন করতে বদ্ধপরিকর।তবে পরিস্থিতি যেহেতু কঠিন তাই অ্যাথলিটদের কথা আগে চিন্তা করতে হবে। আর তাদের আপত্তিতেই আমাদের অলিম্পিক স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে হবে।’

দিনকয়েক আগে আবে জানিয়েছিলেন, অলিম্পিক স্থগিত রাখাটা কোনো বিকল্প নয়। পাশাপাশি অ্যাথলেটদের প্রস্তুতি জারি রাখারও আহ্বান জানিয়েছিলেন তিনি। তবে পরিস্থিতি জটিল আকার ধারণ করায় পুরনো অবস্থান থেকে সরে এলেন তিনি।আইওসি পুরনো অবস্থা থেকে সরে এসে জানিয়েছে, পরিস্থিতি যেহেতু ক্রমেই খারাপ হচ্ছে তাই আমাদের অলিম্পিক স্থগিত রাখার বিষয়টি এবার ভাবতে হচ্ছে। সবদিক পর্যালোচনা করে আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে সিদ্ধান্তে আসবে তারা।


ঢাকা, সোমবার, মার্চ ২৩, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // কে এইচ এই লেখাটি ৭৬৩ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন