সর্বশেষ
মঙ্গলবার ১৯শে জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ | ০২ জুন ২০২০

১৩ নদী পেরিয়ে ঢাকা থেকে কক্সবাজার যাবে রেল

বুধবার, এপ্রিল ১, ২০২০

5.jpg
বিডিলাইভ রিপোর্ট :

ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম স্টেশনে না গিয়ে সরাসরি কক্সবাজার যাবে রেল। ছোট বড় ১৩টি নদী পেরিয়ে রাজধানী থেকে সরাসরি কক্সবাজার যেতে তৈরি হবে রেল লাইন। আটটি গুরুত্বপূর্ণ কম্পোনেন্ট থাকা এই প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ৭৬ হাজার ৬৭৪ কোটি টাকা।

শুরুতে পরিকল্পনা করা হয়েছিলো ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম হয়ে ট্রেন যাবে কক্সবাজার। এই পরিকল্পনায় চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজার পর্যন্ত রেললাইন নির্মাণের পরিকল্পনা নেয়া হয়েছিল। এতে করে ঢাকা-কক্সবাজার সরাসরি ট্রেন যোগাযোগের ক্ষেত্রে অনেক বেশি সময় লাগতো। পরে ঢাকা থেকে সরাসরি কক্সবাজারে রেল যাওয়ার পরিকল্পনা হাতে নেয়া হয়।এটি বাস্তবায়িত হলে পর্যটক ও ভ্রমণপিয়াসীরা চট্টগ্রাম স্টেশনে বিরতি ও বিলম্ব এড়িয়ে রাজধানী থেকে সরাসরি পৌঁছে যাবে কক্সবাজার। এতে যাত্রার সময় প্রায় দেড় ঘণ্টা কমে আসবে।

প্রকল্পের বেশিরভাগ ব্যয় বহন করবে এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক (এডিবি)। বাকি অর্থ সরকার যোগান দেবে। ২০১৯-২০ অর্থবছরের সংশোধিত বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে প্রকল্পের বিপরীতে প্রস্তাবিত বরাদ্দ ঠিক করা হবে।

ঢাকা-চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রেল প্রকল্প প্রস্তুতিমূলক সুবিধার জন্য কারিগরি সহায়তা শীর্ষক প্রকল্প চলমান রয়েছে। ২০২১ সালের ডিসেম্বর মাসে কারিগরি প্রকল্প সম্পন্ন হওয়ার পরেই মূল প্রকল্প শুরু হবে। কারিগরি প্রকল্পটি ২১২ কোটি ৬৪ লাখ ৩১ হাজার টাকায় বাস্তবায়িত হচ্ছে।

ঢাকা থেকে কক্সবাজার পর্যন্ত আধুনিক রেল যোগাযোগের আওতায় আনতে ২০১৫ সালের ২২ সেপ্টেম্বর এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের (এডিবি) সঙ্গে চুক্তি হয়। এরপর ২০১৭ সালের জুনে সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের কাজ শুরু হয়। এ সম্ভাব্যতা যাচাই কার্যক্রম চলতি বছরের জুনে শেষ হওয়ার কথা ছিল। নানা কারণে এই কাজ এক বছর বাড়িয়ে ২০২১ সাল পর্যন্ত নির্ধারণ করা হয়েছে। সম্ভাব্যতা যাচাই শেষে মূল ডিপিপি তৈরির মাধ্যমে প্রকল্পের আটটি মূল কাজ শেষ করবে রেলওয়ে।

প্রকল্প সূত্র জানায়, চট্টগ্রাম থেকে দোহাজারী পর্যন্ত মিটার গেজ রেলপথ থাকলেও নতুন প্রকল্পের মাধ্যমে তা ডুয়াল গেজে রূপান্তর করা হবে। পাশাপাশি ফৌজদারহাট থেকে একটি কার্ভ বা কর্ডলাইন নিয়ে ষোলশহর রেলস্টেশনে যুক্ত করা হবে। রেলওয়ে প্রকৌশল বিভাগ সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, ঢাকা থেকে কক্সবাজারের উদ্দেশে ছেড়ে যাওয় ট্রেনকে চট্টগ্রাম স্টেশনে যেতে হলে সেখানে প্রায় দেড় ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হবে। চট্টগ্রাম স্টেশনে বিরতির পর লোকোমোটিভ (ইঞ্জিন) বিচ্ছিন্ন করে ট্রেনের অন্য প্রান্তে সংযুক্ত করতে হবে। এরপর দ্বিগুণ দূরত্ব পেরিয়ে ট্রেনটিকে ষোলশহর স্টেশন পৌঁছতে হবে। যারা ঢাকা থেকে সরাসরি কক্সবাজার যেতে চান তারা ভ্রমণকালে এমন বিলম্বে বিরক্ত হবেন। তাদের গন্তব্যে পৌঁছতে বাড়তি সময় লাগবে। এজন্য সময় বাঁচাতে ও যাত্রীদের নিরবচ্ছিন্ন সেবা দিতে কর্ডলাইন নির্মাণ করা হচ্ছে।


ঢাকা, বুধবার, এপ্রিল ১, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // কে এইচ এই লেখাটি ১০৫৮ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন