সর্বশেষ
শনিবার ২৩শে জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ | ০৬ জুন ২০২০

যেভাবে ফিরলেন সিয়াম–পরীমনিরা

সোমবার, এপ্রিল ৬, ২০২০

Capture.jpg
বিডিলাইভ রিপোর্ট :

বিশেষ ব্যবস্থায় ঢাকায় ফিরেছে মাঝ নদীতে আটকে থাকা ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’ চলচ্চিত্রের শুটিংয়ের লঞ্চ। রোববার বিকাল সাড়ে ৫টায় লঞ্চটি সদরঘাটে ভিড়েছে বলে জানান চলচ্চিত্রের পরিচালক আবু রায়হান জুয়েল।

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় দেশের সব রুটে যাত্রাবাহী লঞ্চ চলাচল বন্ধ ঘোষণার পর খুলনার দাকোপ এলাকায় কোস্ট গার্ডের বাধার মুখে মাঝ নদীতেই আটকে থাকে শুটিংয়ের লঞ্চটি।

ছবিটির প্রযোজকদের একজন মুশফিকুর রহমান বলেন, ‘কয়েক দিন ধরেই আমরা ফেরার চেষ্টা করছিলাম। কিন্তু লঞ্চের মালিক এই বন্ধের মধ্যে অনুমতিপত্র ছাড়া লঞ্চ ছাড়তে রাজি হননি। যেহেতু এখন সাধারণ ছুটি চলছে, তাই কোনো অনুমতিপত্রও নিতে পারছিলাম না। পরে সিদ্ধান্ত নিই বাসে করে ফিরব। কিন্তু এত মানুষ বাসে আসতে গেলে ঝুঁকি থাকতে পারে বলে ইউনিটের অনেকে রাজি হননি। বিভিন্ন জায়গায় কথাবার্তা বলে অবশেষে নৌপরিববহন প্রতিমন্ত্রী, বিআইডব্লিউটিএ–এর চেয়ারমান ও পরিচালক, খুলনা জেলা জেলা প্রশাসক এবং পুলিশ সুপারের অনুমতি নিয়ে যাত্রা শুরু করি।

এ ব্যাপারে খুলনা জেলার পুলিশ সুপার এস এম শফিউল্লাহ (বিপিএম)–এর সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘আমি ও খুলনার জেলা প্রশাসক মিলে শুটিং ইউনিটকে ফেরার অনুমতি দিয়েছি। কারণ, লঞ্চের মালিক আমাদের অনুমতি ছাড়া লঞ্চ ছাড়তে চাননি। এ কারণে তারা বাসে ফিরতে চেয়েছিলেন। কিন্তু ইউনিটে বেশ কিছু শিশু আছে, বাসে ফেরাটা ঝুঁকি ছিল। মানবিক কারণেই লঞ্চটি ছাড়ার অনুমতি দিয়েছি।’

ছবির পরিচালক আবু রায়হান জানালেন, তারা ফিরেছেন। ‘শুটিং মূলত ২৭ মার্চ বন্ধ হয়েছে। ফিরতে না পারাতে কিছু ইনচার্ট শট নেওয়া হয়েছে এ কয়েক দিন। ২ এপ্রিল থেকে একেবারেই ক্যামেরা বন্ধ। শুটিং প্রায় ৭০ ভাগ শেষ হয়েছে। টানা কাজ করে ছবিটির শুটিং শেষ করার কথা ছিল। কিন্তু করোনাভাইরাসের আতঙ্কের মধ্যে মাথায় চাপ নিয়ে ভালো কাজ হচ্ছিল না। তা ছাড়া সমিতিগুলো থেকেও সব ধরনের শুটিং বন্ধের নির্দেশনা আছে।’


ঢাকা, সোমবার, এপ্রিল ৬, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // এ এম এই লেখাটি ৪৭০ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন