সর্বশেষ
বুধবার ১৩ই কার্তিক ১৪২৭ | ২৮ অক্টোবর ২০২০

পেঁয়াজ আমদানীর ৫শতাংশ শুল্ক প্রত্যাহারের দাবী ব্যবসায়ীদের

রবিবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০২০

13_1.jpg
চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি :

চাঁপাইনবাবগঞ্জের সোনামসজিদ বন্দরে রোববার (২০’সেপ্টেম্বর) কোন ভারতীয় পেঁয়াজ আমদানী হয় নি।

গত শনিবার (১৯’সেপ্টেম্বর) আটকে পড়া পূর্বের এলসি’র ৮ ট্রাক পেঁয়াজ ‘দু’দেশের ব্যবসায়ীদের সমঝোতার পর এ পথে আমদানীর হয়। এগুলি ভারতের রপ্তানী বন্ধের দিন অর্থাৎ ১৩’সেপ্টেম্বর টেন্ডার করা।ওই ৮ ট্রাকের মাধ্যমেই ১৩’সেপ্টেম্বর পর্যন্ত টেন্ডার করা সকল পেঁয়াজ আমদানী শেষ হয়। যখারীতি রোববারও পূর্বের এলসি’র ‘নতুন কনসাইনমেন্টের’ পেঁয়াজ আসার কথা থাকলেও কোন পেঁয়াজের গাড়ী বন্দরে প্রবেশ করে নি। জানা গেছে,পূর্বের এলসি’র পেঁয়াজ প্রবেশে ভারত সরকারের কোন বাধা নেই। বরং দু’দেশেই দাম বৃদ্ধির প্রেক্ষপটে ব্যবসায়িক জটিলতার কারেণই পেঁয়াজ আসে নি।

বন্দর কাস্টমস ইন্সপেক্টর বুলবুল আহমেদ চৌধুরী ও বন্দরে পেঁয়াজের অন্যতম আমদানীকারক নুরুল ইসলাম রোববার পেয়াঁজ না আসার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তবে কেন পেঁয়াজ আসল না তার সূস্পষ্ট সদুত্তর সংশ্লিস্ট কোন পক্ষ দিতে পারে নি। তবে সকল পক্ষই আশাবাদী যে,যে কোন সময় পূর্বের এলসি করা পেঁয়াজসহ আবারও বন্দরে পেঁয়াজ আমদানী শুরু হবে।

এদিকে পেঁয়াজ আমদানীর ৫শতাংশ শুল্ক (সিডি-কাষ্টমস ডিউটি) অবিলম্বে প্রত্যাহারের জন্য সরকারের প্রতি দাবী জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। তারা বলছেন, পেঁয়াজ সংকটের এই সময় শুল্ক প্রত্যাহার হওয়া দরকার। না হলে চলমান পরিস্থিতিতে ব্যবসা করা মুশকিল। বাংলাদেশের বানিজ্য মন্ত্রণালয় এ ব্যাপারে কয়েক দিন পূর্বে আশ্বাস দিলেও তা এখনও কার্যকর হয় নি। জানা গেছে, উভয় দেশে হটাৎ করে দাম বৃদ্ধির প্রেক্ষপট পেঁয়াজ বানিজ্যে নতুন কিছু মাত্রা যুক্ত করেছে। তবে সংকট কাটাতে উভয় দেশের সরকার ও ব্যবসায়ীরা কাজ করছেন।

এদিকে বন্দরে প্রবেশের জন্য সোনামসজিদ বন্দরের বিপরীতে ভারতের মোহদীপুর বন্দর থেকে মালদহ পর্যন্ত বেশ কিছু ট্রাক এখনও আটকা রয়েছে বলে জানা গেছে (কিছু পেঁয়াজ আনলোড করেও রাখা আছে)।

গত শনিবার আমদানীকরা পেঁয়াজের ২০ শতাংশ প্রায় খাবার অযোগ্য,৩০ শতাংশ বেছে চালানোর মত ও ৫০ শতাংশ মোটামুটি ভাল পাওয়া গেছে। ব্যবসায়ীরা বলছেন,এতে ক্ষতির পরিমান কনসাইনমেন্টের পুরো হিসেব নিকেষের পরই বলা যাবে।


ঢাকা, রবিবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // এস বি এই লেখাটি ৩৪২ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন