সর্বশেষ
সোমবার ২৪শে ফাল্গুন ১৪২৭ | ০৮ মার্চ ২০২১

ম্যারাডোনার মৃতদেহ চুরির আশঙ্কা:পুলিশি পাহারা

মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ১, ২০২০

28.jpg ছবি উৎস : সংগৃহীত
বিডিলাইভ ডেস্ক :

দিয়েগো ম্যারাডোনার মৃত্যু তাঁর ভক্তদের হৃদয়ে গভীর দাগ ফেলেছে। অনেকে এখনও তাদের প্রিয় তারকার আকস্মিক মৃত্যু গ্রহণ করতে পারেন না। ২৫ নভেম্বর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ৬০ বছর বয়সে পরপারে পাড়ি জমান আর্জেন্টিনাকে বিশ্বকাপ উপহার দেয়া এই জাদুকর ফুটবলার।

তবে আর্জেন্টিনার পাগলা সমর্থক কিংবা সমাধি চুরি চক্রের হাত থেকে ফুটবল ঈশ্বর দিয়েগো ম্যারাডোনার মৃতদেহকে বাঁচাতে কঠোর পুলিশি পাহারা বসিয়েছে আর্জেন্টিনার অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা কর্তৃপক্ষ।

আর্জেন্টিনার বুয়েনস অ্যাইরেসের উপশহরে সমাধিস্থল ভেলা ভিস্তায় মা-বাবার পাশে শায়িত হন ম্যারাডোনা।

ডিয়েগো ম্যারাডোনা বুয়েনস আইরেসের শহরতলিতে ভেলা ভিস্তা কবরস্থানে তার বাবা-মায়ের পাশে শুয়েছিলেন। সেখানেই এখন ২০০ সশস্ত্র পুলিশের পাহারার ব্যবস্থা করেছে আর্জেন্টিনা সরকার। খবরটি নিশ্চিত করেছে ব্রিটিশ মিডিয়া দ্য সান।

কর্তৃপক্ষের আশঙ্কা, অন্ধ সমর্থকরা ম্যারাডোনার সমাধি ভেঙে ফেলতে পারে। প্রিয় তারকাকে স্মৃতিচিহ্ন হিসেবে নিজের কাছে মমি করে রাখতে চুরি করতে পারে তার দেহ কিংবা দেহের কোনো অংশ বিশেষ। এ কারণে, অন্তত এক সপ্তাহ ভেলা ভিস্তা সমাধিস্থলকে কঠোর পাহারার মধ্যে রাখার ব্যবস্থা করেছে আর্জেন্টিনা কর্তৃপক্ষ।

ম্যারাডোনার সমাধিতে চুরির ব্যাপারে শঙ্কা তৈরির কারণও রয়েছে। ১৯৮৭ সালে সাবেক আর্জেন্টাইন প্রেসিডেন্ট হুয়ান পেরনের সমাধি ভেঙে তাঁর দেহ চুরি করে নিয়ে গিয়েছিল কিছু অন্ধভক্ত। হুয়ান পেরন ছিলেন আর্জেন্টিনায় তুমুল জনপ্রিয় একজন প্রেসিডেন্ট। তাঁর মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে আসে আর্জেন্টিনা জুড়ে। তাঁর শেষযাত্রায় ভক্তরা মাতম করতে শুরু করেন। ফুল আর চোখের পানিতে বিদায় দিয়েছিলেন তাঁরা তাঁদের প্রিয় প্রেসিডেন্টকে। পরে দেখা গেল, কোনো এক অন্ধভক্ত প্রিয় প্রেসিডেন্টের দেহখানা চুরি করে নিয়ে গেছে।

এসব দৃশ্য দেখে, আর্জেন্টিনা সরকার শঙ্কিত হয়ে পড়ে, ম্যারাডোনার মৃত দেহটাকে না আবার সমাধি ভেঙে চুরি করে নিয়ে যায়! এ কারণেই মূলতঃ সশস্ত্র পুলিশি পাহারার ব্যবস্থা করা হয়েছে সমাধিস্থল ঘিরে।


ঢাকা, মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ১, ২০২০ (বিডিলাইভ২৪) // এস বি এই লেখাটি ৭৮৫ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন