সর্বশেষ
বুধবার ৫ই কার্তিক ১৪২৮ | ২০ অক্টোবর ২০২১

ভারতের টিকা কোভ্যাক্সিনের অনুমোদন নিয়ে শুরু হয়েছে তুমুল বিতর্ক

সোমবার, জানুয়ারী ৪, ২০২১

21.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

রবিবার জরুরি ব্যবহারের জন্য ভারতের ড্রাগ কন্ট্রোল জেনারেল অফ ইন্ডিয়া (ডিজিসিআই)-এর তরফে কোভিশিল্ড এবং কোভ্যাকসিন ব্যবহারের অনুমতি দেওয়া হলেও বিতর্ক পিছু ছাড়েনি। বিরোধী শিবির থেকে বিজ্ঞানী মহল প্রশ্ন তুলেছেন কোভ্যাকসিনের ছাড়পত্র দেওয়া নিয়ে। তবে ভারতীয়দের নিজস্ব আবিষ্কৃত কোভ্যাক্সিনের অনুমোদন নিয়ে শুরু হয়েছে তুমুল বিতর্ক। কারণ সেটির ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালই এখনও শেষ হয়নি, নেই সুরক্ষা সংক্রান্ত পর্যাপ্ত তথ্যও।

যদি দেশে কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পায় এবং ১৪০ কোটির দেশে বিপুল সংখ্যক লোকের টিকাকরণের প্রয়োজন পড়ে, সেই অতিরিক্ত ডোজের প্রয়োজন মেটাতে আসরে নামানো হবে কোভ্যাকসিনকে। মূলত বিকল্প হিসেবেই রাখা হচ্ছে এই ভ্যাকসিনটিকে। অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধে তৈরি কোভিশিল্ডই ব্যবহার হবে প্রথমে এমনটাই খবর। অন্যদিকে কোভ্যাকসিন কেবলমাত্র ‘ক্লিনিকাল ট্রায়াল মোডে’ ব্যবহার করা হবে।

ড্রাগস কন্ট্রোলার জেনারেল অব ইন্ডিয়া (ডিসিজিআই) ভি জে সোমানি দাবি করেছেন, প্রায় আট হাজার অংশগ্রহণকারীর ওপর প্রথম এবং দ্বিতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালে কোভ্যাক্সিন ভালো ফলাফল দেখিয়েছে। তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালে ২৫ হাজার ৮০০ জন স্বেচ্ছাসেবকের মধ্যে ইতোমধ্যেই ২২ হাজার ৫০০ জনকে এই ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে। সেই তথ্য অনুযায়ী কোভ্যাক্সিনকে আপাতত নিরাপদ বলেই মনে করা হচ্ছে। তবে অনুমোদন মিললেও কোভ্যাক্সিনের তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল চলবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

ডা: গুলেরিয়া বলেন, “এটি ব্যাক-আপের মতো। যদি আমরা দেখতে পাই যে কেসগুলি বাড়ছে না, তবে ভারত বায়োটেকের তথ্য পরবর্তী মাসের প্রথমদিকে না আসা পর্যন্ত আমরা সেরামের ভ্যাকসিন ব্যবহারেই আটকে থাকব। যদি পরবর্তীতে সেই তথ্য যথেষ্ট ভাল বলে প্রমাণিত হয় তবে কোভিশিল্ডের মতই একই অনুমোদন পাবে কোভ্যাকসিন। সুরক্ষার দিকটি দেখা হবে আগে। কোভ্যাকসিন একটি নিরাপদ ভ্যাকসিন যদিও আমরা জানি না যে এটি কতটা কার্যকরী। নিয়ন্ত্রকরা তেমনটাই জানিয়েছেন। সবুজ সংকেত পেলে সেই মত এই টিকা মজুত করার কাজ হবে।

এ কর্মকর্তা বলেন, সুরক্ষা নিয়ে ন্যূনতম দুশ্চিন্তা থাকলে আমরা কোনও কিছুর অনুমোদন দিতাম না। ভ্যাকসিনগুলো ১১০ শতাংশ নিরাপদ। তবে এই কথায় সন্তুষ্ট হতে পারেননি অনেকেই। সমালোচকদের মতে, কোভ্যাক্সিনকে আগেভাগেই অনুমোদন দিয়ে বড় ভুল করেছে ভারত সরকার।


ঢাকা, সোমবার, জানুয়ারী ৪, ২০২১ (বিডিলাইভ২৪) // এস বি এই লেখাটি ১২৪৯ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন