সর্বশেষ
বৃহঃস্পতিবার ২০শে ফাল্গুন ১৪২৭ | ০৪ মার্চ ২০২১

ফের অভিশংসিত ট্রাম্প

বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ১৪, ২০২১

32.jpg
বিডিলাইভ ডেস্ক :

যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্ট ভবনে হামলায় উসকানি দেওয়ার অভিযোগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই ‘অসম্মানজনকভাবে’ বিদায় দিতে দেশটির প্রতিনিধি পরিষদ প্রস্তুত।

বুধবার (বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার ভোররাত) যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে ট্রাম্পকে অভিশংসনের (ইমপিচমেন্ট) প্রস্তাব পাস হয়।

প্রতিনিধি পরিষদে ট্রাম্পকে ইমপিচ করার ভোটাভুটিতে সব ডেমোক্র্যাট সদস্যের পাশাপাশি ক্ষমতাসীন রিপাবলিকান দলের ‌১০ আইনপ্রণেতা নজিরবিহীনভাবে ট্রাম্পের বিপক্ষে ভোট দিয়েছেন। এর ফলে ৪৩৫ আসনবিশিষ্ট প্রতিনিধি পরিষদে ইমপিচমেন্ট প্রস্তাব ২৩২-১৯৭ ভোটে জয়ী হয়েছে।

আগামী ২০ জানুয়ারি প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের দায়িত্ব পালনের মেয়াদ শেষ হতে যাচ্ছে। গত ৩ নভেম্বর অনুষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্প ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেনের কাছে বড় ব্যবধানে হেরে যান।

কংগ্রেসের নিম্নকক্ষে ইমপিচ হওয়ার পর এখন ট্রাম্পকে উচ্চকক্ষ সিনেটে বিচারের মুখোমুখি হতে হবে। তবে বাকি আর মাত্র এক সপ্তাহ সময়ের মধ্যে রিপাবলিকান নিয়ন্ত্রিত সিনেট ইমপিচমেন্টের ওপর ভোটাভুটির আয়োজন করবে বলে মনে হয় না। কাজেই এই ইমপিচমেন্টের কারণে ট্রাম্পকে নির্ধারিত সময়ের আগে ক্ষমতা ত্যাগ করতে বাধ্য করা যাবে না।

মার্কিন ইতিহাসে ট্রাম্পই একমাত্র প্রেসিডেন্ট যিনি দুইবার এই লজ্জার স্বীকার হলেন। আইনপ্রেণেতারা বলছেন, ট্রাম্প গণতন্ত্রের জন্য শুভ নন। তার কোনো অধিকার নেই বাকি কটা দিন, দেশ পরিচালনা করার। এর আগে ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প প্রথমবার অভিশংসনের স্বীকার হন। যুক্তরাষ্ট্রের কোনো প্রেসিডেন্টের দ্বিতীয়বার অভিশংসন হওয়া নজিরবিহীন ঘটনা।

কিন্তু প্রেসিডেন্ট বাইডেন ক্ষমতা গ্রহণ করার পর সিনেট বিষয়টি নিয়ে ভোটাভুটির আয়োজন করবে এবং সেখানেও একই পরিস্থিতির শিকার হলে ট্রাম্প আর কোনোদিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করতে পারবেন না। ডোনাল্ড ট্রাম্প একাধিকবার ২০২৪ সালে অনুষ্ঠেয় প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

গত বুধবার বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সমর্থক শ্বেতাঙ্গ দাঙ্গাবাজরা দেশটির কংগ্রেস ভবন ক্যাপিটল হিলে হামলা চালায়। এ সময় নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে তাদের সংঘর্ষে একজন পুলিশ কর্মকর্তা ও এক নারীসহ পাঁচজন নিহত হয়। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ওই হামলার পর দাঙ্গাকারীদের সমর্থন করে বক্তব্য রাখেন এবং এখন পর্যন্ত এ ব্যাপারে অনুতাপ প্রকাশ করেননি।দাঙ্গাকারীরা কংগ্রেসে জো বাইডেনকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে ঘোষণা করার যৌথ অধিবেশন বানচাল করতে ট্রাম্পের আহ্বানে সাড়া দিয়ে ক্যাপিটল হিলের সামনে জড়ো হয়েছিল। পরে দৃশ্যত তাৎক্ষণিক ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ ঘটাতে তারা সংসদ ভবনের ভেতর ঢুকে পড়ে।


ঢাকা, বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ১৪, ২০২১ (বিডিলাইভ২৪) // এস বি এই লেখাটি ৪২৩ বার পড়া হয়েছে


মোবাইল থেকে খবর পড়তে অ্যাপস ডাউনলোড করুন